অ্যামাজন কি | অ্যামাজন এর মালিক কে?

ই-কমার্স ওয়েবসাইট এর কথা বলতে গেলে সবার আগে অ্যামাজন কথাটি মাথায় আসে। তবে অনেক ব্যক্তির কাছে হয়তো অ্যামাজন নামটি নতুন হয়ে থাকবে। এই জন্য আজকের এই আর্টিকেল থেকে আমরা অ্যামাজন সম্পর্কে আলোচনা করব।

যেখান থেকে আপনি অ্যামাজন কি, অ্যামাজনের মালিক কে এবং অ্যামাজন বিজনেস মডেল সম্পর্কে জানতে পারবেন। যদি আপনি এই বিষয়গুলি জানতে আগ্রহী হন তাহলে আজকের এই আর্টিকেলটি আপনার কাজে আসবে।

অ্যামাজন কি?

অ্যামাজন হলো একটি ই-কমার্স ওয়েবসাইট। যার মাধ্যমে অনলাইন মারফতে যেকোনো জিনিস অর্ডার করা যায়।

এই ওয়েবসাইটের মধ্যে মানুষের ব্যবহৃত যেকোনো জিনিস খুব সহজে পাওয়া যায়। যদি কোন ব্যক্তি এখান থেকে অর্ডার দেয় তাহলে সেই ব্যক্তির বাড়িতে ডেলিভারি বয় দ্বারা সেই অর্ডারটি পৌঁছে দেওয়া হয়।

অ্যামাজন এর মধ্যে বই থেকে শুরু করে, মোবাইল, ল্যাপটপ, যে কোন ইলেকট্রনিক্স জিনিস, বিশেষ কিছু খাবার জিনিস ইত্যাদি পাওয়া যায়।

বর্তমানে বিভিন্ন অনলাইন শপিং ছাড়াও, বিভিন্ন ধরনের মোবাইল রিচার্জ ইলেকট্রিক বিল পেমেন্টর সুবিধাও অ্যামাজন প্রদান করছে।

অ্যামাজন এর কাজ কি?

অ্যামাজনের কাজ হলো মানুষকে সুবিধা দেওয়া। যার মাধ্যমে যেকোনো ব্যক্তি অনলাইন মারফতে যেকোনো জিনিস অর্ডার করে বাড়িতে বসে পেয়ে যায়।

নির্দিষ্ট জিনিস একজন ব্যক্তিকে ডেলিভারি দেওয়া হল অ্যামাজন এর কাজ।

অ্যামাজন এর মালিক কে?

৫ জুলাই, ১৯৯৪ সালে জেফ বেজোস নামক এক ব্যক্তি amazon.com নামে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করেন। এই ওয়েবসাইটটির মালিক হলেন জেফ বেজোস নিজেই।

অ্যামাজন কি | অ্যামাজন এর মালিক কে?

পরবর্তীকালে ভারতের মধ্যে ব্যবসা করার জন্য জেফ বেজোস amazon.in নামক একটি ওয়েবসাইট তৈরি করেন। যার মাধ্যমে শুধু ভারতীয়রা যেকোনো জিনিস অর্ডার করতে পারে।

অর্থাৎ amazon.com ইন্টারন্যাশনাল ব্যবসার জন্য তৈরি করা হয়েছে এবং amazon.in ভারতের মধ্যে ব্যবসা করার জন্য তৈরি করা হয়েছে।

অ্যামাজন এর সুবিধা

  • অ্যামাজন এর মাধ্যমে আপনি বাড়িতে বসে ডেলিভারি নিতে পারবেন
  • যেকোনো জিনিস পেয়ে যাবেন
  • একটি জিনিসের সাথে অন্যটির দাম দেখে কোনটিভালো এটি বুঝতে পারবেন
  • ক্যাশ অন ডেলিভারি এবং অনলাইন পেমেন্ট এর মাধ্যমে পেমেন্ট দিতে পারবেন
  • প্রডাক্ট পছন্দ না হলে রিফান্ড এবং রিপ্লেস করতে পারবেন
  • যেকোনো সময় যেকোনো জায়গা থেকে অর্ডার দিতে পারবেন
  • ইত্যাদি।

অ্যামাজন বিজনেস মডেল

অ্যামাজন পৃথিবীর জনপ্রিয় ওয়েবসাইট গুলোর মধ্যে একটি। তবে অ্যামাজন নিজে কোন প্রোডাক্ট তৈরি করে না।

অ্যামাজনের মধ্যে, বিভিন্ন ব্যক্তি এবং কোম্পানি অ্যামাজন সেলার একাউন্ট তৈরি করে তাদের প্রডাক্ট লিস্টিং করে।

এবং অ্যামাজন তার নিজস্ব ডেলিভারি সার্ভিস তারা এই সমস্ত পণ্যগুলি কাস্টমারদের হাতে পৌঁছে দেয়।

যেখানে পণ্য অন্যজনের এবং অর্ডার দেয় অন্যজন। অ্যামাজন এই দুইজনের মাঝে থেকে কিছু কমিশন নিয়ে থাকে এবং কখনো কখনো প্রোডাক্ট এর উপর ভিত্তি করে ডেলিভারি সার্ভিস চার্জ করে।

এটাই হলো অ্যামাজনের বিজনেস মডেল। যেখানে সে নিজে কোন পণ্য তৈরি না করে কাস্টমার এবং প্রতিষ্ঠানের মাঝে থেকে আয় করে নেয়।

অ্যামাজন থেকে অর্ডার দেওয়ার নিয়ম?

আমাজন থেকে পণ্য কিনতে গেলে আপনি অ্যামাজন ওয়েব সাইটে যেতে পারেন বা অ্যামাজন অ্যাপ্লিকেশন আপনার মোবাইলে ডাউনলোড করতে পারেন।

এরপর সেখানে আপনার মোবাইল নাম্বার বা ইমেইল এড্রেস দিয়ে একাউন্ট বানিয়ে নির্দিষ্ট পণ্যটি খুঁজে বার করতে হবে।

এরপর সেই পণ্যটি আপনার ঠিকানায় অর্ডার দিয়ে পেমেন্ট মেথড বেছে নিন।

কিছুদিন পর সেই পণ্যটি আপনার ঠিকানায় বা অফিসের ঠিকানায় পৌছে যাবে।

বিস্তারিত জানার জন্য অ্যামাজন থেকে শপিং কিভাবে করতে হয় এই আর্টিকেলটি পড়তে পারেন।

উপসংহার

আশা করি আজকের এই আর্টিকেল থেকে অ্যামাজন কি এবং অ্যামাজন এর মালিক কে এই সম্পর্কে বিস্তারিত বুঝতে পেরেছেন। যদি আর্টিকেলটি সম্পর্কে আপনার এখনো কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে আপনি কমেন্ট করে আমাদের জানাতে পারেন। ধন্যবাদ ভালো থাকবেন।

Sanju

আমি সঞ্জু রাউত। আমার বাড়ি কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ। আমি অন্যকে ইনফরমেশন দিয়ে সাহায্য করতে ভালোবাসি। তাই আমি এই ব্লগটি ওপেন করি, যার দ্বারা আমার সখ এবং অন্যকে সাহায্য দুটোই সম্ভব হয়।

Leave a Comment