ভার্চুয়াল অফিস কি | ভার্চুয়াল অফিসের সুবিধা-অসুবিধা ও কাজ

ভার্চুয়াল অফিস কি – বর্তমান দিনে বেশিরভাগ কোম্পানি এবং ব্যবসার কাজ গুলি যেকোনো জায়গা থেকে ভার্চুয়াল অফিস এর মাধ্যমে করা হচ্ছে। এবং যখন পুরো পৃথিবীজুড়ে করোনা সংক্রমণ হয় এবং লকডাউন শুরু হয় তখন বেশিরভাগ অফিস বাড়িতে বসে চালনা করা হতো।

আজকের দিনে বেশিরভাগ জিনিসই ভার্চুয়াল। তাই বর্তমানে ভার্চুয়াল অফিসও খুব জনপ্রিয়তা লাভ করছে। যদি আপনিও কোন অফিসের কর্মচারী বা মালিক হন তাহলে আপনারা ভার্চুয়াল অফিস সম্পর্কে জেনে রাখা দরকার।

আজকের এই আর্টিকেল থেকে আমরা ভার্চুয়াল অফিস কাকে বলে, ভার্চুয়াল অফিস এর সুবিধা ও অসুবিধা এবং ভার্চুয়াল অফিসের জন্য কি প্রয়োজন? – এই সমস্ত কিছু সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব। এই জন্য আজকের এই আর্টিকেলটি আপনি মনোযোগ দিয়ে পড়তে থাকুন।

ভার্চুয়াল অফিস কি?

একটি অফিস বিল্ডিং এর মধ্যে কাজ না করে, বিভিন্ন জায়গায় থাকা ব্যক্তি মোবাইল ফোন, ইন্টারনেট, কম্পিউটার এবং ই-মেইল এর মাধ্যমে – একজন কোম্পানি বা ব্যাবসার মালিক কে সার্ভিস দেওয়ার প্রক্রিয়া হলো ভার্চুয়াল অফিস।

ভার্চুয়াল অফিস এর মাধ্যমে, সাধারণ অফিসের মতোই কাজকর্ম করা হয়। কিন্তু সাধারন অফিসে যেমন সমস্ত ব্যক্তি একসাথে মিলিত হয়ে একটি বিল্ডিং এর মধ্যে বা একটি জায়গার মধ্যে কাজ করে, ভার্চুয়াল অফিসে তেমন হয় না।

এখানে একজন ব্যক্তি বা অফিস স্টাফ বা কোন ফ্রিল্যান্সার বাড়িতে বসে কম্পিউটার, ইন্টারনেট এবং অন্যান্য টুলস এর সাহায্যে পরিষেবা প্রদান করে।

ভার্চুয়াল অফিস এর প্রধান সুবিধা হল আপনি বাড়িতে বসে বা অন্য যেকোন জায়গা থেকে আপনার অফিসের বা অন্য কারোর অফিসের কাজ করতে পারবেন।

ভার্চুয়াল অফিস বলতে কী বোঝায়?

ভার্চুয়াল অফিস বলতে তাকে বোঝায় যেখানে কোন ব্যক্তি অফিসের বাইরে থেকে ভার্চুয়াল ভাবে অফিসের কাজকর্ম করে।

ভার্চুয়াল অফিসের কাজকর্ম গুলি বিভিন্ন কম্পিউটার এবং মোবাইলের মাধ্যমে যেকোনো জায়গা থেকে সম্পন্ন করা যায়। এবং গুগোল ড্রাইভ ও ই-মেইলের মাধ্যমে বিভিন্ন ফাইল এবং ডকুমেন্ট দেওয়া-নেওয়া করা যায়। এবং বিভিন্ন মিটিং ওয়েবসাইট এবং অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে অফিসের যে কোন মিটিং এটেন্ড করা যায়।

ভার্চুয়াল অফিস কাকে বলে?

যেখানে কোনো ব্যক্তি বা অফিস স্টাফ বা মালিক সশরীরে অফিসের মধ্যে না থেকে বিভিন্ন ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে অফিস পরিচালনা এবং কাজকর্ম করে তাকেই ভার্চুয়াল অফিস বলে।

এখানে বিভিন্ন ব্যক্তি বাড়িতে বসে বা পৃথিবীর যেকোন জায়গা থেকে, অফিসের বিভিন্ন কাজকর্ম করে থাকে।

ভার্চুয়াল অফিস এর কাজ কি?

ভার্চুয়াল অফিসের কাজ হল বাস্তব অফিসের কাজ গুলোকে যেকোন জায়গা থেকে যেকোনো সময় মোবাইল, কম্পিউটার এবং ইন্টারনেট এর মাধ্যমে করা। ভার্চুয়াল ভাবে অফিসের কাজ আপনি বাড়িতে বসে যেকোনো সময় করতে পারবেন।

ভার্চুয়াল অফিসের সুবিধা

  • অফিসারদের জন্য যে সময় নষ্ট হয় সেই সময় বাঁচিয়ে আপনি প্রডাক্টিভিটির উপর নজর দিতে পারবেন
  • যখন ইচ্ছা তখন কাজ করতে পারবেন
  • পুরো দেশের যেখান থেকে খুশি সেখান থেকেই অফিসের কাজকর্ম করতে পারবেন
  • টেকনোলজি ব্যবহার করে ক্লাউড এর মাধ্যমে ফাইল দেওয়া-নেওয়া করতে পারবেন
  • যেকোনো দক্ষ ব্যক্তিকে ভাড়া করে যেকোনো সময় অফিসের কাজ দেওয়া যায়।

ভার্চুয়াল অফিসের অসুবিধা

  • ভার্চুয়াল অফিস এ কাজ করা কর্মচারী অনেক সময় একাকীত্ব বোধ করে
  • মোবাইল, কম্পিউটার এর মত জিনিস গুলো নিয়ে কাজ করার জন্য বিদ্যুৎ খরচ বেশি হয়
  • সাধারণ তুলনায় ভার্চুয়াল অফিস এ কাজ করার দক্ষতা বেশি লাগে
  • কোম্পানির জন্য ভালো সফটওয়্যার এবং হার্ডওয়্যার এর ব্যবস্থা করতে হয়
  • ইত্যাদি।

ভার্চুয়াল অফিসের জন্য কি প্রয়োজন?

Virtual office এর জন্য সবথেকে প্রথমে যেটা দরকার সেটা হলো মোবাইল নাম্বার। কারণ মোবাইল নাম্বারের মাধ্যমে অফিসের সাথে যোগাযোগ করা যায়।

এছাড়া কমিউনিকেশন এবং অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিসের জন্য ল্যাপটপ বা কম্পিউটার ও ইন্টারনেট প্রয়োজন হয়।

এবং কোন অফিস মিটিং এর জন্য আপনি একটি অফিস রুম set up করতে পারেন।

সাধারণত এই কয়েকটি বেসিক জিনিস থাকলেই আপনি ভার্চুয়াল অফিস তৈরি করতে পারবেন।

উপসংহার

আশা করছি আজকের ইনফর্মেশন থেকে ভার্চুয়াল অফিস কাকে বলে, ভার্চুয়াল অফিসের সুবিধা ও অসুবিধা এবং ভার্চুয়াল অফিস এর কাজ কি – এই সম্পর্কে বিস্তারিত বুঝতে পেরেছেন। যদি আপনিও কোন কোম্পানির বা ব্যবসার মালিক হন তাহলে আপনার অফিস কেও ভার্চুয়ালি নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করুন। নাহলে আপনি ভবিষ্যতে পিছিয়ে পড়তে পারেন। ধন্যবাদ ভালো থাকবেন।

শেয়ার করতে চান!

আমি সঞ্জু রাউত। আমার বাড়ি কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ। আমি অন্যকে ইনফরমেশন দিয়ে সাহায্য করতে ভালোবাসি। তাই আমি এই ব্লগটি ওপেন করি, যার দ্বারা আমার সখ এবং অন্যকে সাহায্য দুটোই সম্ভব হয়।

Leave a Comment