কপি কাকে বলে – কম্পিউটারে কপি করার নিয়ম

অনেকেই কম্পিউটার ব্যাবহার করে থাকে। এবং কম্পিউটারে অনেকই কাট কপি পেস্ট এর কাজ করে থাকে।

কিন্তু অনেক ব্যাক্তি এমনও আছেন, যারা কম্পিউটারে কপি করার নিয়ম সম্পর্কে জানেন না। এবং তারা অন্যদের ” কম্পিউটারে কিভাবে কপি করব ” এই প্রশ্নটি করে থাকে।

এইজন্য যদি আপনিও একই সমস্যায় থাকেন তাহলে চিন্তা করার কোনো দরকার নেই। কারণ আজকের আর্টিকেল থেকে আমরা কপি কাকে বলে, কম্পিউটারে কপি করার নিয়ম, কপি করার কিবোর্ড কমান্ড কোনটি এবং কাট কপি পেস্ট এর ব্যবহার সম্পর্কে জানবো।

যদি আপনিও এই সমস্ত প্রশ্নের উত্তর জানতে চান তাহলে আজকের আর্টিকেলটা পড়তে থাকুন।

কপি কাকে বলে?

কম্পিউটার এর কোনো text বা ইমেজ বা কোনো ফাইল এর একই duplicate জিনিসকে, কপি করা বলে।

কম্পিউটারে মাউস এবং কীবোর্ড এর সাহায্যে নির্দিষ্ট জিনিসের duplicate বানানো হয়।

Copy করার মাধ্যমে, একটি জিনিসের একই duplicate অন্য জায়গায় স্থানান্তর করা যায়। যার মাধ্যমে একই কাজ দ্বিতীয় বার করার প্রয়োজন পরে না।

একটি ফাইল ব্যাক আপ নেওয়ার জন্য বা শেয়ার করার জন্য copy জিনিসটি প্রয়োজন হয়।

কম্পিউটারে কপি করার নিয়ম

কম্পিউটারে কপি করার দুটি নিয়ম রয়েছে। একটি হলো mouse এর সাহায্য নিয়ে এবং অপরটি কীবোর্ড এর সাহায্যে।

কপি কাকে বলে - কম্পিউটারে কপি করার নিয়ম

মাউস এর সাহায্যে copy করার জন্য, নির্দিষ্ট text গুলি সিলেক্ট করে right ক্লিক করুন। এরপর copy অপশন দেখতে পাবেন।

কিবোর্ড এর সাহায্যে কপি করার জন্য, নির্দিষ্ট text গুলি সিলেক্ট করে Ctrl + C বাটন প্রেস করুন। এই keyboard key দুটি একসাথে press করার পর লেখাটি কপি হয়ে যাবে।

কম্পিউটারে লেখা কপি করার নিয়ম

কম্পিউটারে কপি করার জন্য, আপনি যে লেখাটি copy করতে চান প্রথমে সেটিকে মাউস এর সাহায্যে সিলেক্ট করুন।

এরপর লেখাটির ওপর মাউস এর সাহায্যে Right click করলে, copy অপশন দেখতে পাবেন। Copy অপশনে ক্লিক করা মাত্র আপনার লেখাটি কপি হয়ে যাবে।

এই ভাবে আপনি যেকোনো লেখা কপি করতে পারবেন।

কপি করার শর্টকাট কম্যান্ড কি?

কপি করার শর্টকাট কম্যান্ড হলো keyboard এর ‘ctrl’ এবং ‘C’

কপি করার শর্টকাট কম্যান্ড কি

Text সিলেক্ট করার পর, এই দুটি বাটন একসাথে চেপে ধরলে, সিলেক্ট করা text copy হয়ে যাবে।

কাট কপি পেস্ট এর ব্যবহার

নির্দিষ্ট text cut করলে, সেই জায়গা থেকে text টি remove হয়ে যাবে।

Copy মানে হলো নির্দিষ্ট text কপি করে, প্রথম এবং দ্বিতীয় জায়গায় (যেখানে text এর duplicate বানাতে চান) রাখতে পারবেন।

Paste মানে হলো text গুলি cut এবং copy করার পর নির্দিষ্ট জায়গায় ছেড়ে দেওয়া।

এই তিনটি জিনিস করতে কাট কপি পেস্ট এর ব্যবহার হয়।

কম্পিউটারে কপি করার সুবিধা

  • আপনি একই ফাইলের একাধিক ডুপ্লিকেট ফাইল তৈরি করতে পারেন এবং আসল ফাইলটি সুরক্ষিত রাখতে পারেন।
  • আপনি একটি ফাইল এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় স্থানান্তর করতে পারেন।
  • আপনাকে বারবার একই জিনিস লিখতে হবে না।
  • কম্পিউটারের সাথে মোবাইল কানেক্ট করে কম্পিউটার ফাইল মোবাইলে নিতে পারেন।
  • আপনি কম্পিউটারে একটি পেনড্রাইভ প্লাগ করে তাৎক্ষণিকভাবে ফাইল স্থানান্তর করতে পারেন।
  • আপনি দুটি ভিন্ন কম্পিউটার সংযোগ করে ফাইল স্থানান্তর করতে পারেন।

Cut ও copy এর পার্থক্য

. নির্দিষ্ট টেক্সট, ফাইল বা ইমেজ cut করলে, particular জায়গা থেকে সেটি invisable বা অদিশ্য হয়ে যাবে।

নির্দিষ্ট টেক্সট, ফাইল বা ইমেজ copy করলে, particular জায়গা থেকে সেটি invisable বা অদিশ্য হয়ে হবে না।

. Cut একবার করলে, দ্বিতীয়বার সেটিকে আর copy করা যায় না।

Copy করা জিনিসের পুনরায় copy বা duplicate হয়।

৩. Cut করলে অনেক সময় বড় সমস্যায় পড়তে হয়। কিন্তু copy করলে কম সমস্যায় পড়তে হয়।

উপসংহার

আশা করি আজকের আর্টিকেল থেকে কপি কাকে বলে, কম্পিউটারে কপি করার নিয়ম, কপি করার শর্টকাট কম্যান্ড কি এবং কাট কপি পেস্ট এর ব্যবহার সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। যদি এখনও আর্টিকেলটা সম্পর্কে কোনো প্রশ্ন থাকে তাহলে কমেন্ট করে আমাদের জানাতে পারেন। ধন্যবাদ ভালো থাকবেন।

আরও পড়ুন

শেয়ার করতে চান!

আমি সঞ্জু রাউত। আমার বাড়ি কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ। আমি অন্যকে ইনফরমেশন দিয়ে সাহায্য করতে ভালোবাসি। তাই আমি এই ব্লগটি ওপেন করি, যার দ্বারা আমার সখ এবং অন্যকে সাহায্য দুটোই সম্ভব হয়।

Leave a Comment