কম্পিউটার টিপস অ্যান্ড ট্রিকস (Computer tips & tricks)

অনেকেই কম্পিউটার ব্যবহার করে থাকেন এবং কম্পিউটারে কাজ করার সময় বিভিন্ন ধরনের টিপস এন্ড ট্রিক সম্পর্কে জেনে থাকবেন। তবে অনেক কম্পিউটার ব্যবহারকারী আছে যারা এই সকল টিপস এন্ড ট্রিক সম্পর্কে অপরিচিত।

এইজন্য আজকের এই আর্টিকেলটি থেকে আমরা কম্পিউটারের এমন কিছু টিপস এন্ড ট্রিকস সম্পর্কে জানব যেগুলি আপনার নিত্যদিনের কাজকে সহজ করে দেবে।

যদি আপনিও একজন কম্পিউটার ব্যবহারকারী হন এবং কম্পিউটারের বিভিন্ন টিপস এন্ড ট্রিকগুলি জানতে চান তাহলে আজকের এই আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে পড়তে থাকুন।

সমস্ত প্রোগ্রাম Minimize করুন

কম্পিউটারে অনেক রকম কাজ করার সময় অনেক সময় কতগুলি ট্যাব নিয়ে কাজ করা হচ্ছে এগুলি মাথায় থাকে না। এইজন্য কখনো কখনো 50 টিরও বেশি ট্যাব একসাথে খোলা হয়ে যায়। এবং কোন ট্যাব ক্লোজ করার দরকার হলে একটি একটি করে সেগুলি ক্লোজ করতে হয়।

যদি আপনি একসাথে সমস্ত ট্যাবগুলিকে মিনিমাইজ করতে চান তাহলে কিবোর্ড থেকে Windows Key + D এই দুটি সুইচ একসাথে চেপে ধরুন। সাথে সাথে কম্পিউটারের মধ্যে খোলা সমস্ত ট্যাব ক্লোজ হয়ে যাবে এবং কম্পিউটার স্ক্রিন পরিষ্কার হয়ে যাবে।

ভয়েস অ্যাসিস্ট্যান্ট ব্যবহার করুন

কম্পিউটারে কাজ করার সময় অনেকেই জানেন না যে, ভয়েসের মাধ্যমে কম্পিউটারকে পুরোপুরি কন্ট্রোল করা যায়। যদি আপনি ভয়েসের মাধ্যমে কম্পিউটার কে কন্ট্রোল করতে চান তাহলে google এলেক্সা বা siri ব্যবহার করতে পারেন।

যেকোনো একটি ভয়েস অ্যাসিস্ট্যান্ট ব্যবহার করে আপনি যে কোন কাজ খুব অল্প সময়ের মধ্যে করতে পারবেন। এবং নোটপ্যাড বা অন্য কোন জায়গায় কোন কিছু লেখার প্রয়োজন হলে আপনি মুখে বলে খুব তাড়াতাড়ি সেগুলি লিখতে পারবেন।

এন্টিভাইরাস ব্যবহার করুন

কম্পিউটারের মধ্যে ইন্টারনেট ব্যবহার করার ফলে অনেক সময় ভাইরাস এবং ম্যালওয়্যার প্রবেশ করে। যার ফলে কম্পিউটার হ্যাং হয়ে যায় এবং কখনো কখনো স্লো হয়ে যায়।

এই ক্ষতির হাত থেকে কম্পিউটার রক্ষা করার জন্য আপনি কম্পিউটারের মধ্যে এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার ব্যবহার করতে পারেন। যেটি কম্পিউটারের মধ্যে থেকে যেকোনো ম্যালওয়্যার এবং ভাইরাসকে দূর করবে।

ভিডিও রেকর্ড করুন

কম্পিউটারের মধ্যে কিভাবে ভিডিও রেকর্ড করতে হয় এই সম্পর্কে অনেকের জানা নেই। যদি আপনি কম্পিউটারের মধ্যে ভিডিও রেকর্ড করতে চান তাহলে কিবোর্ড থেকে Windows + G এই সুইচ গুলি একসাথে ক্লিক করুন।

এবং এরপর আপনার সামনে ‘Yes, this is a game’ নামক একটি লেখা আসবে। লেখাটি আসার পর পুনরায় কিবোর্ড থেকে Windows + R একসাথে চেপে ধরলে, কম্পিউটারে ভিডিও রেকর্ড হওয়া শুরু হয়ে যাবে।

যেকোনো ফাইল সেভ করুন

কম্পিউটারে যে কোন প্রোগ্রামের মধ্যে কাজ করার সময় অনেক সময় ব্যবহারকারী নির্দিষ্ট ফাইলটি সেভ করতে ভুলে যায়। এবং কখনো কখনো নির্দিষ্ট ফাইল সেভ করার জন্য অনেকগুলি অপশনে ক্লিক করতে হয়।

এজন্য আপনি ফাইল সেভ করার শর্টকাট কি CTRL + S ব্যবহার করতে পারেন। নির্দিষ্ট প্রোগ্রাম এ কাজ করার পর এই শর্টকাট কী চেপে ধরলে, ফাইলের নাম দিয়ে খুব সহজে ফাইলটি সেভ করতে পারবেন।

এবং একবার ফাইলটির নাম দিয়ে সেভ করার পর আপনাকে বারবার আর নাম দিতে হবে না। আপনি যখনই এই শর্টকাট কি প্রেস করবেন অটোমেটিক আপনার নির্দিষ্ট কাজটি নির্দিষ্ট ফাইলের মধ্যে সেভ হতে থাকবে।

মোবাইল থেকে ইন্টারনেট ব্যবহার

অনেকেই কম্পিউটারে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে চায়। তবে মডেম বা রাউটার না থাকার কারণে অনেকেই কম্পিউটারে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারে না।

এই সমস্যার হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য আপনি আপনার মোবাইলের ইন্টারনেট, কম্পিউটারের মধ্যে ব্যবহার করতে পারেন।

এর জন্য আপনি মোবাইলের হটস্পট চালু করে কম্পিউটারের ওয়াইফাই অন করে দিন। এবং কম্পিউটারের মধ্যে ওয়াইফাই এর পাসওয়ার্ড দিয়ে মোবাইলের হটস্পট এর সাথে সেটি কানেক্ট করে নিন।

এরপরও আপনি কম্পিউটারের মধ্যে যেকোনো ব্রাউজার খুলে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারেন। তবে এর জন্য আপনার কম্পিউটারে ওয়াইফাই অপশন থাকতে হবে। আর যদি না থাকে তাহলে ওয়াইফাই ড্রাইভার কম্পিউটারে ইন্সটল করে নিন।

কম্পিউটারে whatsapp ব্যবহার করুন

কম্পিউটারের মধ্যে ব্রাউজারের মাধ্যমে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করার জন্য প্রথমে যে কোন একটি ব্রাউজার কম্পিউটারে খুলে নিয়ে সেখানে whatsapp web লিখে সার্চ করুন।

এরপর একদম প্রথমে যে ওয়েবসাইটটি আসবে সেটি খুলে নিন। ওয়েবসাইটটি খুলে নেওয়ার পর আপনার সামনে একটি কিউআর কোড আসবে।

এখন মোবাইলের হোয়াটসঅ্যাপের মধ্যে গিয়ে Setting অপশন থেকে, কিউ আর কোড লোগোর মধ্যে ক্লিক করে, Scan Code অপশনটিতে ক্লিক করুন।

এরপর কম্পিউটারের স্ক্রিনে দেওয়া QR Code স্ক্যান করে মোবাইলের হোয়াটসঅ্যাপ কম্পিউটারের মধ্যে ব্যবহার করুন।

যেকোনো ফাইল ও ফোল্ডার হাইড করুন

কম্পিউটারের মধ্যে থেকে যেকোনো ফাইল এবং ফোল্ডার লুকানোর জন্য আপনি নির্দিষ্ট ফাইলের ওপর রাইট ক্লিক করুন।

রাইট ক্লিক করার সাথে সাথে আপনি একদম শেষে Properties নামক একটি অপশন দেখতে পাবেন। সেই অপশনটিতে ক্লিক করা মাত্র Hidden নামক একটি অপশন আসবে। এই অপশনটির ওপর টিক মার্ক করে এপ্লাই অপশনে ক্লিক করে দিন। সাথে সাথে নির্দিষ্ট ফাইল ও ফোল্ডারটি হাইড হয়ে যাবে।

উপসংহার

আশা করছি আজকের এই আর্টিকেল থেকে কম্পিউটারের সেরা টিপস অ্যান্ড ট্রিকস গুলি সম্পর্কে ইনফরমেশন পেয়ে গেছেন। যদি আপনি কম্পিউটার ব্যবহার করে থাকেন তাহলে এই সকল টিপসগুলি নিয়ে কাজ করতে পারেন যেটি আপনার কাজকে অনেক সহজ করে দেবে।

এবং ভবিষ্যতে যদি আপনারা কম্পিউটার সংক্রান্ত আরো টিপস এবং ট্রিক জানতে চান তাহলে আমাদের কমেন্ট করে জানাতে পারেন। আমরা পরবর্তীকালে আরোও এরকম আর্টিকেল আপনাদের উপহার দেওয়ার চেষ্টা করব। ধন্যবাদ।

Sanju

আমি সঞ্জু রাউত। আমার বাড়ি কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ। আমি অন্যকে ইনফরমেশন দিয়ে সাহায্য করতে ভালোবাসি। তাই আমি এই ব্লগটি ওপেন করি, যার দ্বারা আমার সখ এবং অন্যকে সাহায্য দুটোই সম্ভব হয়।

Leave a Comment