59+ Chanakya Niti in Bengali | চাণক্য নীতি বাণী বাংলা শ্লোক

Chanakya Niti in Bengali – যে সকল চাণক্য নীতি গুলি রয়েছে সেগুলি জীবনের প্রতিটি পদক্ষেপে কাজে লাগে। এইজন্য প্রত্যেকটি মানুষকে চাণক্যর নীতিগুলো অনুসরণ করা দরকার।

এই জন্য আজকের আর্টিকেল থেকে আমরা চাণক্য নীতি বাণী বাংলা এবং চাণক্য কে ছিলেন এ সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেব।

যদি আপনিও চাণক্য শ্লোক গুলি জানতে আগ্রহী থাকেন তাহলে আর্টিকেলটি পড়ে নিন। এই আর্টিকেলটার মধ্যে আপনি ৬০ টিরও বেশি চাণক্য নীতি (Chanakya Niti in Bengali) সম্পর্কে জানতে পারবেন।

চাণক্য কে ছিলেন?

চাণক্য একটি ব্রাহ্মণ পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন এবং  কৌটিল্য বা বিষ্ণুগুপ্ত নামে পরিচিত। তিনি তক্ষশীলা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা লাভ করেন।

তিনি মৌর্য সাম্রাজ্যের (৩২২-১৮৫ খ্রিস্টপূর্বাব্দ) প্রতিষ্ঠাতা চন্দ্রগুপ্ত মৌর্যের (আরসি ৩২১-সি.২৯৭ খ্রিস্টপূর্বাব্দ) শাসনামলে প্রধানমন্ত্রী ছিলেন।

59+ Chanakya Niti in Bengali | চাণক্য নীতি বাণী বাংলা শ্লোক

তিনি একজন মহান চিন্তাবিদ, অর্থনীতিবিদ, আইনবিদ এবং রাজকীয় উপদেষ্টা এবং দার্শনিক ছিলেন এবং তাঁর লেখা দুটি জনপ্রিয় বই এর নাম হলো কৌটিল্য অর্থশাস্ত্র এবং চাণক্য নীতি।

চাণক্য , ভারতে রাষ্ট্রবিজ্ঞান এবং ক্লাসিক অর্থনীতির অগ্রদূত ও একজন মহান শিক্ষক ছিলেন এবং তিনি মৌর্য সাম্রাজ্যের উত্থানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন।

Chanakya Niti in Bengali

১. যে ব্যক্তি তার পরিবারের সদস্যদের সাথে অত্যধিক সংযুক্ত থাকে, সে ভয় এবং দুঃখ অনুভব করে, কারণ সমস্ত দুঃখের মূল হল সংযুক্তি। সুতরাং সুখী হওয়ার জন্য একজনের সংযুক্তি ত্যাগ করা উচিত।

২. যেইসব শিক্ষার্থীরা দিনের বেশিরভাগ সময় ঘুমিয়ে নষ্ট করে আর প্রয়োজনের তুলনায় বেশি ঘুমানো পছন্দ করে, সেইসব শিক্ষার্থীরা জীবনে সফল হতে পারেনা এবং তারা বেশিরভাগ কাজ ঠিক মতো করতে অক্ষম হয়।

৩. দুর্জন ব্যক্তি বিদ্যান হলেও যেকোনো মূল্যে তাকে এড়িয়ে চলা উচিত,কারন মণিভূষিত বিষাক্ত সাপও অধিক ভয়ঙ্কর হয়ে থাকে।

৪. সদগুণ সম্পন্ন একজন পুত্র,অযোগ্য শত শত পুত্রের চেয়ে অনেক শ্রেয়। কারণ রাতের আকাশে একটিমাত্র চাঁদই কিন্তু আকাশের সমস্ত অন্ধকারকে দূর করতে পারে।

৫. সবচেয়ে বড় গুরু-মন্ত্র হল: আপনার গোপন কথা কারো সাথে শেয়ার করবেন না । এটা তোমাকে ধ্বংস করবে।

৬. যে তার লক্ষ্য নির্ধারণ করতে পারে না ; জিততে পারবে না।

৭. তাকে এড়িয়ে চলুন যে আপনার সামনে মিষ্টি করে কথা বলে কিন্তু আপনার পিছনে আপনাকে ধ্বংস করার চেষ্টা করে, কারণ সে এমন একটি কলসীর মত যা উপরে দুধ সহ বিষে ভরা।

৮. একজন পন্ডিত ব্যক্তিও ঘোর দুঃখ-কষ্টের স্বীকার হতে পারেন যদি সে, একজন মূর্খ ব্যক্তিকে উপদেশ দেন অথবা কোনো দুষ্ট স্ত্রীর ভরন পোষণে লিপ্ত হন কিংবা কোনো দুঃখী ব্যক্তির সাথে দৈনন্দিন সম্পর্ক স্থাপন করেন।

এটিও জেনে নিন -  এলপিজি কি - এলপিজি সিলিন্ডার কিভাবে নেবেন

৯. অলস ব্যক্তির কিছুই প্রাপ্ত হয় না।

১০. তাকে এড়িয়ে চলুন যে আপনার সামনে মিষ্টি করে কথা বলে কিন্তু আপনার পিছনে আপনাকে ধ্বংস করার চেষ্টা করে, কারণ সে এমন একটি কলসীর মত যা উপরে দুধ সহ বিষে ভরা।

১১. যদিও একটি সাপ বিষাক্ত না হয়, তবে এটি বিষাক্ত হওয়ার ভান করা উচিত।

১২. যারা পরিশ্রমী,তাদের জন্যে কোনকিছুই জয় করা অসাধ্য কিছু নয়। শিক্ষিত কোন ব্যক্তির জন্যে কোন দেশই বিদেশ নয়।

চাণক্য নীতি

১৩. একজন ব্যক্তির খুব বেশি সৎ হওয়া উচিত নয়। সোজা গাছ আগে কাটা হয় এবং সৎ মানুষদের আগে পেঁচানো হয়।

১৪. অলস শিক্ষার্থীরা ঠিক ততটাই জ্ঞান অর্জন করতে পারে, যতটা তাদের পরীক্ষায় উর্ত্তীর্ণ হওয়ার জন্য প্রয়োজন।

১৫. কোনও কাজ শুরু করার আগে নিজেকে সবসময় তিনটি প্রশ্ন করুন আমি কেন করছি, ফলাফল কী হতে পারে এবং আমি কি সফল হব । আপনি যখন গভীরভাবে চিন্তা করেন এবং এই প্রশ্নগুলোর সন্তোষজনক উত্তর খুঁজে পান, তখনই এগিয়ে যান।

১৬. গুরু শিষ্যকে যদি একটি অক্ষরও শিক্ষা দেন,তবে পৃথিবীতে এমন কোনও জিনিস নেই,
যা দিয়ে সেই শিষ্য গুরুর ঋণ শোধ করতে পারে।

১৭. মানুষ জন্ম দ্বারা নয়, কর্ম দ্বারা মহান।

১৮. স্ট্যাটাসে আপনার উপরে বা নীচের লোকদের সাথে বন্ধুত্ব করবেন না। এই ধরনের বন্ধুত্ব আপনাকে কখনই সুখ দেবে না।

১৯. একটি শুকনো গাছ যেমন জ্বলে উঠলে পুরো বন পুড়ে যায়, তেমনি একজন বদমাশ ছেলে পুরো পরিবারকে ধ্বংস করে দেয়।

২০. আমাদের অতীতের জন্য দুশ্চিন্তা করা উচিত নয়, ভবিষ্যতের জন্য উদ্বিগ্ন হওয়া উচিত নয়; বিচক্ষণ ব্যক্তিরা কেবল বর্তমান মুহুর্তের সাথে মোকাবিলা করে।

২১. প্রতিটি বন্ধুত্বের পিছনে কিছু স্বার্থ থাকে। স্বার্থ ছাড়া বন্ধুত্ব হয় না। এটা একটা তিক্ত সত্য।

২২. দারিদ্র্য, রোগ, দুঃখ, বন্ধন এবং বিপদ- সব কিছুই মানুষ নিজেরই অপরাধরূপ বৃক্ষের ফল।

২৩. শত্রুর দুর্বলতা জানা না হওয়া পর্যন্ত তাকে বন্ধুত্বপূর্ণ শর্তে রাখতে হবে।

২৪. এই পৃথিবীতে তিনটি রত্ন আছে, খাদ্য, জল এবং আনন্দদায়ক শব্দ – বোকারা পাথরের টুকরোকে রত্ন হিসাবে বিবেচনা করে।

২৫. একজন জ্ঞানী ব্যক্তিকে মানুষ সম্মানিত করে। একজন জ্ঞানী ব্যক্তি তার শিক্ষার জন্য সর্বত্র সম্মানের আদেশ দেয়। প্রকৃতপক্ষে, শিক্ষা সর্বত্র সম্মানিত।

চাণক্য নীতি বাণী বাংলা

২৬. শাস্ত্র অনন্ত,বিদ্যাও প্রচুর।
সময় অল্প অথচ বিঘ্ন অনেক।
তাই যা সারভূত তারই চর্চা করা উচিত।
হাঁস যেমন জল-মিশ্রিত দুধ থেকে শুধু দুধটুকুই তুলে নেয়,তেমনি।

২৭. বিষের পাত্র থেকে অমৃত,অপবিত্র স্থান থেকে স্বর্ণ,সবচেয়ে নীচ ব্যক্তির কাছ থেকেও জ্ঞান এবং নীচ বংশের পরিবার থেকেও গুণবতী স্ত্রী গ্রহণ করা উচিত।

২৮. যদি আপনি একটি দুষ্ট ব্যক্তি এবং একটি সাপের সাথে সঙ্গ রাখতে চান তবে সাপটি বেছে নিন। কারণ সাপ শুধুমাত্র আত্মরক্ষার জন্য আপনাকে কামড় দেবে কিন্তু দুষ্ট ব্যক্তি যেকোনো কারণে এবং যেকোনো সময় বা সর্বদা কামড় দেবে।

এটিও জেনে নিন -  নিজের নামে চেক লেখার নিয়ম

২৯. পরস্ত্রীকে যে মায়ের মত দেখে, অন্যের জিনিসকে যে মূল্যহীন মনে করে এবং সকল জীবকে যে নিজের মত মনে করে, সেই যথার্থ জ্ঞানী।

৩০. অত্যধিক সৌন্দর্য সীতাকে অপহরণ করেছে, অত্যধিক অহংকার রাবণকে হত্যা করেছে এবং অত্যধিক দান রাজা বালিকে গভীর সমস্যায় ফেলেছে। তাই খুব বেশি কিছু খারাপ । একজনকে ‘অতিরিক্ত’ থেকে বিরত থাকতে হবে।

৩১. অলসের কোন বর্তমান ও ভবিষ্যৎ নেই।

৩২. শাস্ত্র অনন্ত,বিদ্যাও প্রচুর।
সময় অল্প অথচ বিঘ্ন অনেক।
তাই যা সারভূত তারই চর্চা করা উচিত।
হাঁস যেমন জল-মিশ্রিত দুধ থেকে
শুধু দুধটুকুই তুলে নেয়,তেমনি।

৩৩. শক্তিশালী মনকে কেউ পরাজিত করতে পারে না।

৩৪. দুই ধরনের হিংসুক প্রাণী আছে, যথা সাপ ও সাপের মতোই ক্রূর স্বভাব বিশিষ্ট মানুষ। এরমধ্যে সাপের মতো ক্রূর স্বভাব বিশিষ্ট মানুষ অধিক ভয়ানক।

৩৫. যে মানুষ সকল প্রাণীর প্রতি করুণা ও সহানুভূতিশীল সে অবশ্যই ধার্মিক। তার ধর্মীয়তা প্রমাণের জন্য তার কোনো ধর্মীয় চিহ্ন বা চিহ্নের প্রয়োজন নেই।

৩৬. একজন মূর্খের জন্য বই ততটা উপকারী, যেমন আয়না একজন অন্ধের জন্য উপকারী।

৩৭. সাপ নিষ্ঠুর খলও নিষ্ঠুর,
কিন্তু সাপের চেয়ে খল বেশি নিষ্ঠুর।
সাপকে মন্ত্র বা ওষধি দিয়ে বশ করা যায়,
কিন্তু খলকে কে বশ করতে পারে?

চাণক্য শ্লোক

৩৮. নখযুক্ত প্রাণী, শিংওয়ালা জন্তু, অস্ত্রধারী ব্যক্তি এবং রাজনীতিবীদকে কখনই বিশ্বাস করতে নেই।

৩৯. লালসার মতো ধ্বংসাত্মক কোনো রোগ নেই।

৪০. একজন বোকাকে উপদেশ দেওয়া, খারাপ চরিত্রের মহিলার যত্ন নেওয়া এবং অলস ও অসুখী ব্যক্তির সাথে থাকা বুদ্ধিহীন।

৪১. যেমন সুগন্ধি ফুলে ভরা গাছ পুরো বনে সুবাস ছড়ায়। একইভাবে, একজন যোগ্য পুত্র পুরো পরিবার, সম্প্রদায় এবং দেশের গৌরব নিয়ে আসে।

৪২. অবহেলায় কর্মনাশ হয়,
যথেচ্ছ ভোজনে কুলনাশ হয়,
যাঞ্চায় সম্মান-নাশ হয়,
দারিদ্র্যে বুদ্ধিনাশ হয়।

৪৩. বিদ্বান সকল গুণের আধার,অজ্ঞ সকল দোষের আকর।
তাই হাজার মূর্খের চেয়ে একজন বিদ্বান অনেক কাম্য।

৪৪. পুত্রকে যারা পড়ান না,সেই পিতামাতা তার শত্রু

৪৫. হাঁসদের মধ্যে বক যেমন শোভা পায় না,
সভার মধ্যে সেই মূর্খও তেমনি শোভা পায় না।

৪৬. রাতের ভূষণ চাঁদ,
নারীর ভূষণ পতি,
পৃথিবীর ভূষণ রাজা,
কিন্তু বিদ্যা সবার ভূষণ।

৪৭. পাঁচ বছর বয়স অবধি পুত্রদের লালন করবে,
দশ বছর অবধি তাদের চালনা করবে,
ষোল বছরে পড়লে তাদের সঙ্গে বন্ধুর মত আচরণ করবে।

৪৮. বুদ্ধিমান ব্যক্তির এই ৫টি জায়গায় যাওয়া উচিত নয়-ক.যেখানে রোজগারের কোনো সুযোগ নেই।
খ.যেখানকার মানুষদের মধ্যে কোনো ভয়ডর নেই।
গ.যেখানকার মানুষদের মধ্যে কোনো লজ্জাবোধ নেই।
ঘ.যেখানে কোনো বুদ্ধিমান ব্যক্তি বসবাস করেনা।
ঙ.যেখানে মানুষ দান-ধর্মের বিষয়ে অনীহা প্রকাশ করে।

এটিও জেনে নিন -  মানুষের সব থেকে বড় বন্ধু কে ও কেন?

Chanakya Niti Bangla

৪৯. যারা রূপযৌবনসম্পন্ন এবং উচ্চকুলজাত
হয়েও বিদ্যাহীন,তাঁরা সুবাসহীন পলাশ ফুলের মত বেমানান।

৫০. তিনটি বিষয়ে সন্তোষ বিধেয়:নিজের পত্নীতে,ভোজনে এবং ধনে। কিন্তু অধ্যয়ন,জপ, আর দান এই তিন বিষয়ে যেন কোনও সন্তোষ না থাকে।

৫১. বিদ্যার চেয়ে বন্ধু নাই,ব্যাধির চেয়ে শত্রু নাই। সন্তানের চেয়ে স্নেহপাত্র নাই,দৈবের চেয়ে শ্রেষ্ঠ বল নাই।

৫২. অতিরিক্ত স্নেহ করার ফলে,সন্তানের অনেক দোষ জন্মায়, কিন্তু কঠোরতার দ্বারা তার সুন্দর চরিত্র গড়ে ওঠে। তাই সন্তান ও শিষ্যের প্রতি কমল নয় কঠোর হও।

৫৩. চঞ্চল মন যেকোনো বিষয়ে সম্পূর্ণ জ্ঞান অর্জন করার পিছনে সবচেয়ে বড় বাঁধা হয়ে দাঁড়ায়।

৫৪. একটিমাত্র পুষ্পিত সুগন্ধ বৃক্ষে যেমন সমস্ত বন সুবাসিত হয়,তেমনি একটি সুপুত্রের দ্বারা সমস্ত কুল ধন্য হয়।

৫৫. আড়ালে কাজের বিঘ্ন ঘটায়, কিন্তু সামনে
ভাল কথা বলে, যার উপরে মধু কিন্তু অন্তরে বিষ, তাকে পরিত্যাগ করা উচিত।

৫৬. বইয়ে থাকা বিদ্যা,
পরের হাতে থাকা ধন একইরকম।
প্রয়োজন কালে তা বিদ্যাই নয়,ধনই নয়।

৫৭. আপদের নিশ্চিত পথ হল ইন্দ্রিয়গুলির অসংযম, তাদের জয় করা হল সম্পদের পথ, যার যেটি ঈপ্সিত সে সেই পথেই যায়।

৫৮. স্বভাবত কেউই আমাদের বন্ধু কিংবা শত্রু হয়না, একমাত্র কাজের দ্বারাই মানুষ আমাদের বন্ধু কিংবা শত্রু হয়।

৫৯. বৃদ্ধি আর বিনাশ নিজের হাতে থাকে!

৬০. সাধুগণ সকল জীবকেই তাঁর কৃপা প্রদান করে, এমনকি যাদের সদগুণ নেই তাদেরও। ঠিক যেমন সমাজচ্যুত ব্যক্তির ঘরে আলো বিতরণ করতে চাঁদও বিরত থাকেনা।

৬১. মনের বাসনাকে দূরীভূত করা উচিত নয়।
এই বাসনাগুলোকে গানের গুঞ্জনের মতো কাজে লাগানো উচিত।

৬২. বিপত্তির সময় স্নেহ প্রদর্শনকারী ব্যক্তিই মিত্র হয়।

৬৩. বিষের পাত্র থেকে অমৃত,অপবিত্র স্থান থেকে স্বর্ণ,সবচেয়ে নীচ ব্যক্তির কাছ থেকেও জ্ঞান এবং নীচ বংশের পরিবার থেকেও গুণবতী স্ত্রী গ্রহণ করা।

চাণক্য নীতি বাংলা বই

যদি আপনি চাণক্য নীতি বইটি কিনে নেন তাহলে চাণক্যের সবকটি নীতি সেই বইয়ের মধ্যে পেয়ে যাবেন। বইটি আপনি অনলাইন মারফত অ্যামাজন বা flipkart থেকে কিনে নিতে পারেন। এছাড়াও আপনি বাজার থেকে যেকোন বইয়ের দোকান থেকেও বইটি কিনে নিতে পারেন।

এছাড়া ইন্টারনেটে এমন কিছু ওয়েবসাইট আছে যারা চাণক্য নীতি বাংলা বইটির পিডিএফ ভার্সন বিনামূল্যে ডাউনলোড করার অনুমতি দেয়। আপনি গুগলে সার্চ করে এই বইটি ডাউনলোডও করে নিতে পারেন।

উপসংহার

আশা করছি আজকের এই আর্টিকেলটি থেকে আপনি চাণক্য নীতি (Chanakya Niti in Bengali) সম্পর্কে পড়ে নিয়েছেন। যদি আপনি এগুলি নিজের মাথার মধ্যে রাখতে পারেন, তাহলে এগুলি আপনার জীবনের প্রতিটি পদক্ষেপে কাজে আসবে। ধন্যবাদ ভালো থাকবেন।

Sanju

আমি সঞ্জু রাউত। আমার বাড়ি কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ। আমি অন্যকে ইনফরমেশন দিয়ে সাহায্য করতে ভালোবাসি। তাই আমি এই ব্লগটি ওপেন করি, যার দ্বারা আমার সখ এবং অন্যকে সাহায্য দুটোই সম্ভব হয়।

Leave a Comment