ATM এর পূর্ণরূপ কি – ATM full form in Bengali

আজকের দিনে এটিএম মেশিন প্রায় বেশির ভাগ ব্যাক্তি ব্যবহার করে থাকেন। যার মাধ্যমে ব্যাংক ব্যবহারকারী অনেক সুবিধা পেয়ে থাকেন। কিন্তু অনেকেই আছেন যারা এটিএম এর পূর্ণরূপ (ATM full form in Bengali) সম্পর্কে জানেনা।

এইজন্য আজকের আর্টিকেল থেকে আমরা এটিএম সম্পর্কে বিস্তারিত জানব। যেখান থেকে আপনারা ATM এর পুরো নাম কি, ATM কি, ATM এর আবিষ্কারক কে এবং ATM এর সুবিধা কি – এই সম্পর্কে জানতে পারবেন।

ATM full form in Bengali (ATM এর পূর্ণরূপ কি)

এটিএম এর পূর্ণরূপ হল “অটোমেটেড টেলার মেশিন” (Automated Teller Machine)। বাংলায় এটিকে “স্বয়ংক্রিয় টেলার মেশিন” বলা হয়।

এখন প্রত্যেকটি ব্যাংকই তাদের কাস্টমারদের টাকা তোলা এবং জমা করার জন্য ATM সুবিধা প্রদান করেছে। যার মাধ্যমে যে কোন ব্যক্তি যে কোন সময় যে কোন এটিএম থেকে টাকা তুলতে পারেন।

আগে এটিএম এর মাধ্যমে শুধুমাত্র টাকা তোলা যেত। কিন্তু এখনকার বেশিরভাগ এটিএম এ টাকা তোলার সাথে সাথে টাকা জমাও দেওয়া যায়।

ATM কি?

এটিএম হল একটি ইলেকট্রনিক টেলিকমিউনিকেশন ডিভাইস। এই ডিভাইসের মাধ্যমে টাকা লেনদেন করা, ব্যাঙ্ক ব্যালেন্স চেক করা, টাকা টান্সফার করার মত ব্যাংকিং কাজ গুলি করা যায়।

নির্দিষ্ট ব্যাংক তাদের কাস্টমারদের সুবিধা অনুযায়ী এটিএম তৈরি করে বিভিন্ন স্থানে স্থাপন করেন। এবং কাস্টমার ব্যাংক থেকে দেওয়া প্লাস্টিক কার্ডের মাধ্যমে, যেকোন স্থানের যে কোন এটিএম থেকে টাকা লেনদেন করার সুযোগ পেয়ে থাকে।

ATM এর জনক কে?

Atm এর আবিষ্কারক হলেন John Shepherd-Barron। তিনি কাস্টমারদের সুবিধার জন্য, অটোমেটিক লেনদেন করা যায় এরকম একটি মেশিনের মডেল তৈরি করার চেষ্টা করেছিলেন।

এবং একটির পর একটি পরীক্ষার পর, তার মডেলের ভিত্তিতে তৈরি প্রথম মেশিনটি ১৯৬৭ সালে, লন্ডনে বসানো হয়।

এটিএম এর মাধ্যমে কি কি কাজ করা যায়?

  1. টাকা তোলা যায়।
  2. ব্যাঙ্ক ব্যালেন্স চেক করা যায়।
  3. মোবাইল নাম্বার রেজিস্টার করা যায়।
  4. অন্য একাউন্টে টাকা টান্সফার করা যায়।
  5. নতুন পিন কোড পাওয়া যায় এবং পুরনো পিন কোড পরিবর্তন করা যায়।
  6. কেনাকাটা করা এবং বিভিন্ন বিল জমা করা যায়।
    টাকা জমা করা যায়।

এটিএম ব্যবহারের সুবিধা

  • আপনি যেকোনো সময় যেকোনো ব্যাংকের এটিএম থেকে টাকা তুলতে পারবেন।
  • টাকা তোলার জন্য আপনাকে ব্যাংকের লাইনে দাড়াতে হবে না।
  • বেশিরভাগই এটিএম এর মাধ্যমে ব্যাংকে না গিয়ে টাকা জমা করতে পারবেন।
  • যেকোনো সময় ব্যাংকের ব্যালেন্স চেক করতে পারবেন।
  • গভীর রাতে টাকার প্রয়োজন হলে, এটিএম এর মাধ্যমে তুলতে পারবেন।
  • 24 ঘন্টা সার্ভিস পাবেন।
  • ইত্যাদি।

প্রথম এটিএম বুথ কোন ব্যাংক তৈরি করে?

বাংলাদেশের স্ট্যান্ডার্ড চাটার্ড ব্যাংক, ১৯৯৩ সালে প্রথম এটিএম বুথ তৈরি করে। এবং এই বুথের স্থান ছিল, ঢাকার বনানীতে।

এবং ভারতের এইচএসবিসি ব্যাংক ১৯৮৭ সালে প্রথম এটিএম সুবিধা প্রদান করেন।

উপসংহার

আশাকরি উপরের ইনফর্মেশন থেকে এটিএম এর পূর্ণরূপ কি (ATM full form in Bengali), এটিএম এর জনক কে এবং এটিএম থেকে কি কি সুবিধা পাওয়া যায় এই সম্পর্কে বুঝতে পেরেছেন। যদি এখনও এই আর্টিকেলেটি সম্পর্কে আপনার কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে আপনি কমেন্ট করে আমাদের জানাতে পারেন। ধন্যবাদ ভালো থাকবেন।

Also Read

Sanju

Leave a Comment