রাতে ঘুম না আসার কারণ ও প্রতিকার | ঘুম না আসলে করণীয়

ঘুম না আসলে করণীয় – অনিদ্রা বা রাতে ঘুম না আসার কারণ হলো, একটি ঘুম সংক্রান্ত সমস্যা। এই সমস্যায় অনেক ব্যক্তি আক্রান্ত। এবং কখনও কখনও অনিদ্রার কারণ মারাত্মক হয়ে থাকে।

দিনে ঘুমানো, মানসিক চিন্তা এবং শরীরের কোন রোগ অনিদ্রার প্রধান কারণ।

যদি আপনিও একই সমস্যার শিকার হন এবং রাতে ঘুম না আসার কারণ ও প্রতিকার পেতে চান তাহলে আজকের এই আর্টিকেলটি আপনাকে সাহায্য করবে।

এবং আমি আশা করি আজকের এই আর্টিকেল থেকে আপনি অনিদ্রা থেকে কিছুটা স্বস্তি পাবেন। তাই দেরি না করে আর্টিকেলটি পড়তে থাকুন।

রাতে ঘুম না আসার কারণ

প্রথমে আপনি ঘুম না আসার কারণ গুলি জেনে নিন। কারণগুলি জানা হয়ে গেলে আমরা নিচে এর প্রতিকার বা ঘুম না আসলে করণীয় কাজগুলো সম্পর্কে জানব। রাতে ঘুম না আসার কারণ গুলি হলো –

১. মানসিক চাপ

রাতে ঘুম না আসার সবথেকে সাধারণ কারণটি হলো মানসিক চাপ। যখন মানসিক চাপ বৃদ্ধি পায় তখন শরীরে কটিসলের মাত্রা বৃদ্ধি পায়। যেটি হল একটি স্ট্রেস হরমোন।

এই হরমোনের কারণে মস্তিষ্কের বিশ্রাম হয় না। মানসিক চাপ হলো রাতে ঘুম না আসার বা অনিদ্রার প্রধান কারণ।

২. স্লিপ অ্যাপনিয়া

স্লিপ অ্যাপনিয়া হল একপ্রকার ঘুমের রোগ। এই রোগ হলে ঘুমানোর সময় ক্লান্ত বোধ হয়। রাতে ঘুমানোর সময় শ্বাসকষ্টের কারণ, অনেক সময় রাতে ঘুম না আসার কারণ হয়ে দাঁড়ায়।

৩. ডিহাইড্রেশন

নিত্য দিনের কাজের চাপে আমরা অনেক সময় জল পান করতে ভুলে যাই। অতিরিক্ত জল না খাওয়ার কারণে আমাদের শরীরে ক্লান্তি আসে এবং মাথা ব্যথা বেড়ে যায়। পরিমাণ মতো জল না খাওয়ায় আমাদের শরীরে ডিহাইড্রেশন শুরু হয় এবং অনিদ্রার কারণ হয়।

৪. অত্যধিক ক্যাফেইন গ্রহণ করা

যখন আমরা অফিসে কাজ করি তখন ক্লান্ত বোধ হওয়ার কারণে আমরা বেশিরভাগ সময় চা এবং কফি পান করি।

চা এবং কপি অত্যধিক পরিমাণে পান করা আমাদের শরীরে বিপরীত প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করে। আমরা যখন এগুলি পান করি তখন আমাদের শরীরে ক্যাফেইন এর প্রভাব দীর্ঘক্ষন ধরে থাকে।

এইসব জিনিস আমাদের শরীরে এড্রিনাল হরমোনের পরিমাণ বাড়ায়। যে কারণে আমরা সাথে সাথে সক্রিয় ও উদ্যমী হয়ে উঠি। এবং শরীরে ক্যাফেইন এর প্রভাব কমতে শুরু করলে আমরা পুনরায় ক্লান্ত বোধ করি।

অতিরিক্ত ক্যাফেইন গ্রহণ রাতে ঘুম না আসার কারণ হয়ে উঠতে পারে। এই জন্য এগুলি কম সেবন করুন।

৫. ঘুমানোর অভ্যাস

অনিয়মিত শোয়ার সময়, দিনের বেলা ঘুমানো, সবার আগে উত্তেজিত কার্যকলাপ, সঠিক ঘুমের পরিবেশের অভাব, বিছানায় বসে খাওয়া ও টিভি দেখা এই সমস্ত কিছু ঘুমের খারাপ অভ্যাসের মধ্যে পড়ে।

যদি আপনি এই জিনিসগুলো মধ্য থেকে যে কোন একটি জিনিস করেন তাহলে আজ থেকে এগুলি বঞ্চিত করুন।

৬. ঘুমানোর আগে ফোন ব্যবহার

ঘুমানোর আগে ফোন ব্যবহার করা অনেক সময় অনিদ্রার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। মোবাইলের মধ্যে থেকে যে কৃত্রিম আলো বেরিয়ে আসে, সেটি মানুষের মস্তিষ্ককে জাগিয়ে রাখার সংকেত দেয়।

এবং মোবাইলের মধ্যে থেকে বেরিয়ে আসা রেডিয়েশন মানুষের মস্তিষ্কের খুব বড় ক্ষতি করে। এই কারণে মনের মধ্যে ঘুমানোর ক্লান্তি চলে আসে। তাই রাতে শোবার আগে মোবাইল দূরে রাখুন।

৭. গতিহীন লাইফস্টাইল

যদি আপনি সারাদিন বসে একই জায়গায় কাজ করেন তাহলে আপনার শরীর নিষ্ক্রিয় হয়ে যাবে। যে কারণে আপনি অলস এবং ক্লান্ত বোধ করবেন।

এই কারণে কাজের পর আপনার কোথাও বেরিয়ে আসা উচিত বা ভারী কিছু কাজ করা উচিত।

শরীরকে সতেজ রাখতে, যদি আপনি প্রতিদিন ব্যায়াম করেন আপনার শরীরে এবিলিটি আসবে এবং যে কারণে আপনি রাতে ভালো ঘুমোতে পারবেন।

৮. সন্ধ্যায় অতিরিক্ত খাবার খাওয়া

সন্ধ্যার সময় অতিরিক্ত খাবার খেলে রাতে অস্বস্তি বোধ হয় এবং এই কারণে অনেকে বুকে ব্যথা অনুভব করে।

কখনো কখনো অতিরিক্ত খাবার খেলে গ্যাস ও বদহজম হয়। এইজন্য সন্ধ্যার সময় হালকা খাবার খাওয়ার চেষ্টা করুন।

৯. ওষুধ খাওয়া

আপনি যদি কোনো হাঁপানির ওষুধ, উচ্চ রক্তচাপের ওষুধ, ব্যথার ওষুধ খান তাহলে আপনার মাথা ভারী হয়ে যাবে। এবং এই সকল ওষুধগুলি ঘুমের ব্যাঘাত ঘটায়।

ঘুম না আসলে করণীয় কাজ

যদি আপনার উপরের জিনিস গুলির মধ্যের অভ্যাস করে থাকে তাহলে আপনার রাতের ঘুম আসবে না। এই সমস্ত জিনিস গুলো থেকে বাঁচতে এখানে দেওয়া টিপস গুলি অনুসরণ করে চলুন।

  1. রাতে শোবার সময় এবং সকালে ওঠার সময় এক রাখার চেষ্টা করুন
  2. প্রতিদিন ভারী কিছু কাজ করুন
  3. আপনার ওষুধগুলি চেক করুন এবং দেখুন এগুলি আপনাকে অনিদ্রায় ভোগাচ্ছে কিনা
  4. কফি এবং অ্যালকোহল জাতীয় জিনিস গুলি কম পরিমাণে সেবন করুন
  5. সন্ধ্যা এবং শোয়ার আগে অতিরিক্ত খাবার ত্যাগ করুন
  6. শরীর অনুযায়ী জল পান করুন
  7. শোবার ঘরটিকে আরামদায়ক করুন
  8. বিছানায় যাবার দু’ঘণ্টা আগে মোবাইল সরিয়ে রাখুন
  9. ঘুমানোর আগে বই পড়ুন
  10. প্রত্যেকদিন ব্যায়াম করুন
  11. দশ থেকে পনেরো মিনিটের জন্য মেডিটেশন করুন।

রাতে ঘুম না আসার রোগের নাম

ঘুমের সমস্যা নিয়মিত চলতে থাকলে ক্রনিক (chronic) হয়। পরে এটি অসুখে পরিণত হয়। ডাক্তারি ভাষায় একে বলে ইনসমনিয়া (insomnia)।

উপসংহার

আশা করছি, উপরের ইনফর্মেশন থেকে রাতে ঘুম না আসার কারণ ও প্রতিকার সম্পর্কে বুঝতে পেরেছেন। যদি আপনি একই সমস্যায় থাকেন তাহলে আজ থেকেই উপরের নিয়ম গুলি মেনে চলুন। আমি আশা করব খুব শীঘ্রই আপনি, অনিদ্রা থেকে মুক্ত হতে পারবেন। ধন্যবাদ ভালো থাকবেন।

আরো পড়ুন

Sanju

আমি সঞ্জু রাউত। আমার বাড়ি কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ। আমি অন্যকে ইনফরমেশন দিয়ে সাহায্য করতে ভালোবাসি। তাই আমি এই ব্লগটি ওপেন করি, যার দ্বারা আমার সখ এবং অন্যকে সাহায্য দুটোই সম্ভব হয়।

Leave a Comment