রবিশস্য কাকে বলে | রবিশস্যর উদাহরণ | পঞ্চ রবিশস্য কি কি?

রবিশস্য কথাটি আপনি অনেক সময় শুনে থাকবেন। কিন্তু রবিশস্য কাকে বলে এই সম্পর্কে অনেক ব্যক্তি জানেনা। এইজন্য আজকের এই আর্টিকেলটি থেকে আমরা রবিশস্য সম্পর্কে বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর জেনে নেব।

যেখান থেকে আপনি রবিশস্য কাকে বলে, রবিশস্যর উদাহরণ, পঞ্চ রবিশস্য কি কি, রবিশস্য মানে কি – এই সকল প্রশ্নের উত্তর পাবেন। যদি আপনিও এই ব্যাপারে বিস্তারিত জানতে চান তাহলে আর্টিকেলটি পড়তে থাকুন।

রবিশস্য কাকে বলে?

অনেক ধরনের কৃষিজাত ফসল শীতকালে রোপন করা হয় এবং চাষাবাদকৃত ফসল পরবর্তীতে গ্রীষ্মকালে উত্তোলন করা হয়। এই ধরনের ফসল কে রবিশস্য বলা হয়।

অর্থাৎ যে সকল কৃষিজাত ফসল শীতকালে চাষ করা হয় এবং গ্রীষ্মকালে উত্তোলন করা হয় সেগুলিকে রবিশস্য বলে।

রবিশস্যর উদাহরণ

গম, জোয়ার, তৈলবীজ, আউস ধান, আলু, গাজর, কপি প্রভৃতি রবিশস্যের উদাহরণ।

এই সকল প্রশ্ন গুলি শীতকালে রোপন করা হয় এবং গ্রীষ্মের সময়ে এগুলিকে উত্তোলন করা হয়। এইজন্য এই সকল ফসলগুলি রবিশস্যের উদাহরণ।

রবিশস্য কি?

এমন অনেক ধরনের ফসল আছে যেগুলো শীতকালে রোপন করা হয়ে থাকে এবং গ্রীষ্মকালে উত্তোলন করা হয়ে থাকে। এই সকল শস্যগুলিকে বা ফসলগুলিকে রবিশস্য নামে চেনা হয়।

রবিশস্য মানে কি?

শীতকালে কৃষিজাত ফসল রোপন করে গ্রীষ্মকালে উত্তোলন করা হয় এমন ফসলগুলি হলো রবিশস্য।

আলু, গাজর, কপি, আউস ধান ইত্যাদি ফসল গুলি রবিশস্যের মধ্যে পড়ে।

ভারতের প্রধান রবিশস্য কি?

ভারতের প্রধান রবি ফসল হল ধান

পঞ্চ রবিশস্য কি কি?

পঞ্চ রবিশস্য মানে হল পাঁচটি রবিশস্য। এই কথাটি সাধারণত একাদশীতে শুনতে পাওয়া যায়। কারণ একাদশী করতে গেলে পঞ্চ রবিশস্য খাদ্য হিসেবে গ্রহণ করা যায় না।

এই পাঁচটি রবিশস্য বা পঞ্চ রবিশস্য গুলি হলো –

  1. ধান জাতীয় খাদ্য
  2. গম জাতীয় খাদ্য
  3. যব জাতীয় খাদ্য
  4. ডাল জাতীয় খাদ্য
  5. তেল জাতীয় খাদ্য।

এই রবিশস্য গুলির মধ্যে যে সকল খাদ্য গুলি আছে সেগুলি জানতে হলে একাদশীতে কি কি খাওয়া যাবে কি খাওয়া যাবেনা – এই আর্টিকেলটি পড়তে পারেন।

উপসংহার

আশা করছি আজকের এই আর্টিকেলটি থেকে রবিশস্য কাকে বলে, রবিশস্যর উদাহরণ, পঞ্চ রবিশস্য কি কি – এই সম্পর্কে বিস্তারিত বুঝতে পেরেছেন। যদি এই আর্টিকেলটি সম্পর্কে আপনার এখনো কোনো প্রশ্ন থাকে তাহলে আপনি কমেন্ট করে আমাদের জানাতে পারেন।

Sanju

আমি সঞ্জু রাউত। আমার বাড়ি কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ। আমি অন্যকে ইনফরমেশন দিয়ে সাহায্য করতে ভালোবাসি। তাই আমি এই ব্লগটি ওপেন করি, যার দ্বারা আমার সখ এবং অন্যকে সাহায্য দুটোই সম্ভব হয়।

Leave a Comment