মেয়েদের সাথে বন্ধুত্ব করার ১১ টি সহজ উপায়

কিভাবে মেয়েদের সাথে বন্ধুত্ব করা যায় – অনেকেই মেয়েদের সাথে বন্ধুত্ব করতে চায়, কিন্তু কিভাবে যে কোন মেয়ের সাথে বন্ধুত্ব করতে হয় এই সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা না থাকার জন্য অনেকেই বন্ধুত্ব করতে অক্ষম হয়।

এইজন্য আজকের আর্টিকেল থেকে আমরা মেয়েদের সাথে বন্ধুত্ব করার উপায় গুলি সম্পর্কে আলোচনা করব।

মেয়েদের সাথে বন্ধুত্ব করার জন্য যদি আপনি এইসব জিনিস গুলি ফলো করতে পারেন তাহলে যে কোন মেয়ের সাথে আপনিও বন্ধুত্ব করতে পারবেন।

যদি আপনিও মেয়েদের সাথে বন্ধুত্ব করতে চান তাহলে নিচে দেওয়া তথ্য গুলি থেকে কিভাবে মেয়েদের সাথে বন্ধুত্ব করা যায় – এটি tips গুলি জেনে নিন।

১. নিজে উদ্যোগ নিন

আপনি যদি কোন মেয়েকে আপনার বন্ধু বানাতে চান, তাহলে সবার আগে আপনাকে বন্ধুত্ব করার উদ্যোগ নিতে হবে। কারণ মেয়েরা কখনোই সামনে থেকে বন্ধুত্ব করে না। তাই আপনি তার কাছে যান এবং তার সাথে পূর্ণ বিশ্বাসের সাথে কথা বলুন।

২. আত্মবিশ্বাস রাখুন

মেয়েদের সাথে কথা বলার জন্য আপনাকে আত্মবিশ্বাসী হতে হবে। আপনার মধ্যে মেয়েদের সাথে কথা বলার ভয় থাকলে হবে না।

আপনি বেশি কিছু না ভেবে, মেয়েদের সাথে কথা বলতে শুরু করার চেষ্টা করুন। এবং কথা বলতে বলতে ধীরে ধীরে বন্ধুত্ব করতে পারবেন।

৩. ব্যাবহার ঠিক রাখুন

ব্যাবহার ঠিক রাখা হলো মেয়েদের সাথে বন্ধুত্ব করার কৌশল গুলির মধ্যে একটি।

আচরণ জিনিসটি ছেলেদেরদের সাথে বন্ধুত্ব করার কাছে কিছুই না। কিন্তু মেয়েদের কাছে ব্যাবহার জিনিসটির মানে অনেক।

তাই পছন্দের মেয়েকে বন্ধু বানাতে চাইলে, তার সামনে ভদ্রলোকের মতো ভালো ব্যবহার করতে হবে। তবেই মেয়েটি আপনাকে আবেগ দেবে এবং আপনার সাথে বন্ধুত্ব করতে পছন্দ করবে।

৪. সোশ্যাল মিডিয়াতে ফ্রেন্ডশিপ বানান

ফেসবুক ইনস্টাগ্রাম এর মত সোশ্যাল মিডিয়া আজকাল সবাই ব্যবহার করে থাকে। এইজন্য আপনি সর্বপ্রথম ফেসবুক এবং ইনস্টাগ্রামে মেয়েটিকে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠান।

এবং মেয়েটি কথা বলা শুরু করলে, চ্যাট এর মাধ্যমে ধীরে ধীরে কথাবার্তা বলা শুরু করুন।

৫. মেয়েটি সম্পর্কে তথ্য নিন

মেয়েটির সাথে কথা বলার জন্য, আপনাকে তার বন্ধুদের বা তার আশেপাশের লোকদের কাছ থেকে তার সম্পর্কে প্রতিটি ছোট বড় জিনিসের তথ্য নেওয়া উচিত।

মেয়েটির কথা জানার পর আপনি যখন তার সাথে কথা বলবেন, তখন তার সাথে বন্ধুত্ব করাটা একটু সহজ হবে।

৬. কথোপকথন শুরু করুন

সমস্ত তথ্য কালেক্ট করার পর আপনি মেয়েটির সাথে কথোপকথন শুরু করুন। যদি আপনি তার সম্পর্কে অনেক তথ্য জানেন তাই তার সাথে কথা বলার জন্য অনেক টপিক পেয়ে যাবেন। এইভাবে দীর্ঘক্ষণ কথাবার্তা চালিয়ে যান।

৭. চোখে চোখ রেখে কথা বলুন

মেয়েদের সাথে কথা বলার সময় বেশিরভাগ ছেলেই মেয়েদের থেকে চোখ নামিয়ে রেখে। কিন্তু এটা একেবারেই ভুল জিনিস। কারণ এর থেকে সে ভাবতে পারে, আপনার মধ্যে আত্মবিশ্বাস কম রয়েছে।

আপনি যদি কোন মেয়েকে পছন্দ করেন এবং তাকে আপনার বন্ধু বানাতে চান। তাই তার চোখে চোখ রেখে কথা বলা উচিত।

৮. Care করুন বা যত্ন করুন

একটি মেয়েকে আপনার বন্ধু করতে, আপনাকে অবশ্যই তার সাথে সম্মানের সাথে আচরণ করতে হবে। সম্ভব হলে মেয়েটির যত্ন নিন। যাতে মেয়েটি আপনার বন্ধু হয়ে যায়। কারণ মেয়েরা এমন একজন ছেলেকে পছন্দ করে যে তাদের ছোট-বড় প্রতিটি বিষয়ের যত্ন নেয়।

৯. নিজস্ব ব্যক্তিত্ব দিয়ে আকৃষ্ট করুন

আপনি যদি কোন মেয়েকে পছন্দ করেন এবং তাকে আপনার বন্ধু বানাতে চান তাহলে মেয়েটির সামনে আপনার ব্যক্তিত্বের ভালো ছাপ রেখে যেতে হবে।

তবেই আপনি মেয়েটিকে আপনার প্রতি আকৃষ্ট করতে পারবেন এবং মেয়েটি আপনার বন্ধু হয়ে উঠবে।

১০. মেয়েটিকে support বা সমর্থন করুন

মেয়েরা সেই ছেলেটিকে খুব পছন্দ করে, যে তাদের ছোট-বড় সব কষ্টকে সাপোর্ট করে। আপনি চাইলে আপনার পছন্দের মেয়েকে আপনার বন্ধু বানাতে পারেন। তাই তিনি যা করেন তার সাথে আপনাকে অবশ্যই থাকতে হবে। এইভাবে আপনার এবং তার মধ্যে একটি ভাল বন্ধন তৈরি হবে।

১১. একগুঁয়ে হবেন না এবং গালি দেবেন না

প্রতিটি মেয়ে নিজের জন্য একটি সুদর্শন এবং সাহসী ছেলে পছন্দ করে। তারা একগুঁয়ে ছেলে একদম পছন্দ করেনা।

তাই এমন পরিস্থিতিতে মেয়ের সামনে একগুঁয়ে হয়ে গেলে, মেয়েটি আপনার সাথে বন্ধুত্ব করতে চাইবে না।

তাই যখনই কারো সাথে বন্ধুত্ব করতে যাবেন, তার সামনেই থাকবেন এবং গার্ল ফ্রেন্ড বানাতে চাইলে ভুল করেও তাকে নিয়ে কমেন্ট করবেন না। এবং গালিগালাজ শব্দ ব্যবহার করবেন না।

উপসংহার

আশাকরি উপরের ইনফর্মেশন থেকে মেয়েদের সাথে বন্ধুত্ব করার কৌশল এবং মেয়েদের সাথে বন্ধুত্ব করার নিয়ম গুলি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন।

যদি আপনি কোন মেয়ের সাথে বন্ধুত্ব করতে চান তাহলে উপরের টিপসগুলো অনুসরণ করে যে কোন মেয়ের সাথে বন্ধুত্ব করতে পারেন।

আরও জানুন

শেয়ার করতে চান!

আমি সঞ্জু রাউত। আমার বাড়ি কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ। আমি অন্যকে ইনফরমেশন দিয়ে সাহায্য করতে ভালোবাসি। তাই আমি এই ব্লগটি ওপেন করি, যার দ্বারা আমার সখ এবং অন্যকে সাহায্য দুটোই সম্ভব হয়।

Leave a Comment