মডেম কি – মডেম কে আবিষ্কার করেন ও Modem এর কাজ

বেশীরভাগ ইন্টারনেট ব্যবহারকারী মডেম ব্যবহার করে থাকে। যেটি হল একটি গুরুত্বপূর্ণ নেটওয়ার্ক ডিভাইস। তবে অনেকেরই মডেম সম্পর্কে বেশি ইনফরমেশন জানা নেই। এইজন্য আজকের আর্টিকেলে আমরা মডেম কি, মডেম কে আবিষ্কার করেন, এবং মডেম এর কাজ কি এই সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেবো। যদি আপনিও মডেম সম্পর্কে এই সমস্ত প্রশ্নের উত্তর পেতে চান, তাহলে আজকের আর্টিকেলটি পড়তে পারেন।

মডেম কি?

মডেম হলো এমন একটি ডিভাইস যেটি পিসি এবং টেলিফোন লাইনের মধ্যে লাগানো হয়। কম্পিউটারের ডাটা Digital form এ অবস্থান করে এবং টেলিফোন লাইনের ডাটা Analog form এ অবস্থান করে।

মডেম কম্পিউটারের ডিজিটাল সিগনাল কে এনালগ সিগনালে কনভার্ট করে, টেলিফোন লাইনের মধ্য flow করতে সাহায্য করে।

এর মানে হলো মডেম কম্পিউটারের ডিজিটাল সিগনালেকে, এনালগ সিগন্যাল এ পরিবর্তিত করে। যেটি টেলিফোন লাইনের মধ্য দিয়ে ট্রান্সমিট হয়।

মডেম (Modem) এর পূর্ণরূপ-

মডেম এর ফুল ফর্ম হলো Modulation-Demodulation। এই ডিভাইসটি ডাটাকে Modulation ও Demodulation, এই দুটি কাজ করতে সক্ষম হওয়ার কারণে এটির নাম Modem দেওয়া হয়েছে। যেখানে Modulation এর Mo এবং Demodulation এর dem কথাটি সংযুক্ত করে এর নামকরণ করা হয়।

মডেম বলতে কি বোঝায়

রাউটার থেকে কম্পিউটারে নেটওয়ার্ক পাঠানোর জন্য ক্যাবল তারের ব্যবহার করা হয়। কেবল তার শুধুমাত্র এনালগ সিগনাল বহন করতে পারে। কিন্তু কম্পিউটার ডিজিটাল সিগন্যাল নিয়ে কাজ করে।

এই সমস্যা দূর করতে কেবল তার এবং কম্পিউটারের মধ্যে একটি মডেম লাগানো হয়। যেটি কম্পিউটারের ডিজিটাল সিগন্যাল কে, এনালগ সিগনালে পরিবর্তন করে, ক্যাবল তারের মধ্য দিয়ে সিগন্যাল বহন করতে পারে এবং এনালগ সিগন্যাল ও ডিজিটাল সিগনালে, কনভার্ট করে কম্পিউটারে প্রবেশ করাতে পারে।

মডেম কে আবিষ্কার করেন?

1962 সালে, Bell 103 নামক ব্যাক্তি AT&T Corporation এর দ্বারা মডেম তৈরি করেন। এরপর 1996 সালে Dr. Brent Townshend নামক ব্যাক্তি 56K Modem আবিষ্কার করেন। যেটি প্রত্যেক সেকেন্ডে 56K bit স্পিড দিতে সক্ষম হয়েছে।

মডেম কত প্রকার?

মডেম তিন প্রকারের হয়ে থাকে।

  1. External Modem
  2. Internal Modem এবং
  3. Fax Modem

External Modem

এই ধরনের মডেম কম্পিউটার এর বাইরে কোন স্থানে ঝোলানো বা রাখা হয়। এবং usb cable এর সাহায্যে মডেমকে কম্পিউটারের সাথে যুক্ত করা হয়। এই ধরনের মডেম কতকটা box এর মত দেখতে হয়। এটি দোকান থেকে আলাদা ভাবে কিনে ঘরের এক কোণে রাখা থাকে। এই জন্য এই ধরনের মডেম এর নামকরণ করা হয়েছে এক্সটার্নাল মডেম।

Internal Modem

এই ধরনের মডেল কম্পিউটারের মধ্যে ফিট করা থাকে। কম্পিউটার থেকে মোবাইলে নেট কানেকশন নেওয়ার সময় এই ধরনের মডেম কাজে আসে। এটি কম্পিউটারের Expansion Slot এ লাগানো হয়ে থাকে। এই ধরনের মডেম কম্পিউটারের ভেতরে অবস্থান করার কারণে এটিকে, ইন্টার্নাল মডেম বলা হয়।

Fax Modem

কম্পিউটারের Fax machine রূপে এই Modem ব্যবহৃত হয়। Fax exchange করতে এই ধরনের মডেম কাজে লাগে।

Modem এর কাজ কি?

কম্পিউটারের ডিজিটাল সিগন্যাল কে, এনালগ সিগনালে পরিবর্তন করে, ক্যাবল তারের মধ্য দিয়ে সিগন্যাল বহন করানো এবং এনালগ সিগন্যাল কে ডিজিটাল সিগনালে, কনভার্ট করে কম্পিউটারে প্রবেশ করানো হলো Modem এর কাজ।

মডুলেশন ও ডিমডুলেশন কি?

কোনো সিগন্যালকে পরিবর্তন করে, অন্য সিগন্যালে রূপান্তরিত করলে তাকে মডুলেশন বলে। এবং রূপান্তর করা সিগন্যাল আবার পরিবর্তিত হয়ে, অরিজিনাল সিগনালে রূপান্তরিত হলে তাকে ডিমডুলেশন বলে।

কম্পিউটারের ক্ষেত্রে মডুলেশন ও ডিমডুলেশন এর প্রক্রিয়াটি মডেম এর সাহায্যে করা হয়।

উপসংহার

আশাকরি উপরের ইনফর্মেশন থেকে মডেম কি, মডেম কে আবিষ্কার করেন এবং মডেমের কাজ কি এই সম্পর্কে বুঝতে পেরেছেন। যদি মডেম সম্পর্কে এখনো কিছু জিজ্ঞাসা থাকে, তাহলে কমেন্ট করে আমাদের জানাতে পারেন।

আরও পড়ুন

শেয়ার করতে চান!
  •  
  •  
  •  
  •  

আমি সঞ্জু রাউত। আমার বাড়ি কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ। আমি অন্যকে ইনফরমেশন দিয়ে সাহায্য করতে ভালোবাসি। তাই আমি এই ব্লগটি ওপেন করি, যার দ্বারা আমার সখ এবং অন্যকে সাহায্য দুটোই সম্ভব হয়।

Leave a Comment