জন্ম নিবন্ধন অনলাইন আবেদন করুন

জন্ম নিবন্ধন আবেদন – ২০০৪  সালে বাংলাদেশ সরকার জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন আইন প্রণয়ন করেন। এই আইন অনুসারে বাংলাদেশের যে কোন ধর্মের, যে কোন জাতির, যেকোনো বয়সের মানুষকে তার জন্মের পর জন্ম নিবন্ধন করা বাধ্যতামূলক।

যদি আপনি একজন বাংলাদেশী হন তাহলে আপনাকে এই আইনটি মেনে চলতে হবে এবং আপনার পরিবারের সকলের জন্ম নিবন্ধন (নতুন জন্ম নিবন্ধন আবেদন) অবশ্যই করতে হবে।

কিন্তু অনেকেই জানেন না জন্ম নিবন্ধন আবেদন কিভাবে করতে হয়। এই জন্য আজকের এই আর্টিকেল থেকে আমরা জন্ম নিবন্ধন অনলাইন আবেদন কিভাবে করতে হয় এই সম্পর্কে আপনাদের জানাবো। যেখান থেকে আপনি জন্ম নিবন্ধন সম্পর্কে সমস্ত প্রশ্নের উত্তর পাবেন।

জন্ম নিবন্ধন কি?

একজন মানুষের জন্মের পর তাকে রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি দেওয়ার সনদ হলো জন্ম নিবন্ধন। একজন শিশুর জন্মের তথ্য আইনগতভাবে সরকারি খাতাতে লেখাকেই জন্ম নিবন্ধন বলা হয়।

বাংলাদেশ এই আইনটি ২০০৪ সালে প্রণয়ন করেন। এবং একজন বাংলাদেশী হিসেবে সকলের এই আইনটি মেনে চলা বাধ্যতামূলক।

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম

অনলাইনের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন আবেদন করার নিয়ম হলো আপনাকে প্রথমে bdris এর ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। সেখানে প্রয়োজনীয় তথ্য গুলি দেওয়ার পরই আপনি জন্ম নিবন্ধন এর জন্য আবেদন করতে পারবেন।

অনলাইন এর মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন করতে চাইলে নিচের ইনফর্মেশন গুলি দেখে নিন।

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন আবেদন

নতুন জন্ম নিবন্ধন আবেদন করার জন্য আপনাকে প্রথমে https://bdris.gov.bd/br/application এই ওয়েবসাইট টিতে যেতে হবে।

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন আবেদন করুন

সেখানে যাওয়ার পর সর্বপ্রথম আপনি “জন্ম নিবন্ধন সনদ আপনার কোন ঠিকানার অফিস থেকে সংগ্রহ করতে চান” সেটি নির্বাচন করুন। এরপর “পরবর্তী” অপশনে ক্লিক করুন।

এরপর,

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন আবেদন করুন

  • নামের প্রথম অংশ বাংলায়
  • নামের শেষ অংশ বাংলায় *
  • নামের প্রথম অংশ ইংরেজিতে
  • নামের শেষ অংশ ইংরেজিতে *
  • জন্ম তারিখ (খ্রিঃ) *
  • পিতা ও মাতার কততম সন্তান *
  • লিঙ্গ *
  • দেশ *
  • বিভাগ *
  • ডাকঘর (বাংলায়) *
  • ডাকঘর (ইংরেজিতে) *
  • গ্রাম / পাড়া / মহল্লা *
  • গ্রাম / পাড়া / মহল্লা ( ইংরেজি ) *
  • বাসা ও সড়ক ( নাম, নম্বর ) *
  • বাসা ও সড়ক ( নাম, নম্বর ) ( ইংরেজি ) *

এই সকল জিনিসগুলি সঠিকভাবে দিন। দরকার হলে আপনার দেওয়া তথ্য গুলি পুনরায় যাচাই করে দিন। এবার, পুনরায় “পরবর্তী” অপশনে ক্লিক করুন।

এখন আপনাকে আবেদনকারীর তথ্য, মানে যিনি এই জন্ম নিবন্ধনের আবেদন করছেন, তার তথ্য দিতে হবে।

এরপর আবেদন পত্রটি সংশ্লিষ্ট নিবন্ধক কার্যালয়ে স্থানান্তিরত হয়ে যাবে।
এখন  প্রিন্ট বাটনে ক্লিক করলে আবেদন পত্রের মুদ্রিত কপি পেয়ে যাবেন। যা পরবর্তীতে জন্ম নিবন্ধন পত্র গ্রহনে আই প্রিন্ট কপি প্রয়োজন হবে।
এরপর  ১৫ দিনের মধ্যে উক্ত আবেদন পত্রে নির্দেশিত প্রত্যয়ন সংগ্রহ করে, প্রয়োজনীয় প্রমাণপত্রের সত্যায়িত কপিসহ নিবন্ধক অফিসে যোগাযোগ করতে হবে।

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড

প্রথমে,অনলাইন জন্ম নিবন্ধন তথ্য ব্যবস্থা বা Online BRIS ওয়েবসাইটটিতে প্রবেশ করুন। তারপর প্রথম বক্সটিতে জন্ম নিবন্ধন সনদ এ থাকা ১৭ ডিজিটের নাম্বার প্রদান করুন এবং দ্বিতীয় বক্সে জন্ম নিবন্ধন সনদে থাকা জন্ম তারিখটি দিন।

এরপর “অনুসন্ধান” অপশনটিতে ক্লিক করুন।

জন্ম নিবন্ধন কোথায় করতে হয়?

জন্ম নিবন্ধন করার জন্য ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা বা সিটি কর্পোরেশন কার্যালয়ে করতে হয়।

জন্ম নিবন্ধন কখন করতে হয়?

সাধারণত শিশুর জন্মের ৪৫ দিনের মধ্যে জন্ম নিবন্ধন করতে হয়।

যদি ৪৫ দিনের মধ্যে শিশুর জন্ম নিবন্ধন না করা হয়, তাহলে ৫ বছরের মধ্যে জন্ম নিবন্ধন করা আবশ্যক।

জন্ম নিবন্ধন কিভাবে করতে হয়?

শিশুর বা কোন ব্যক্তির জন্ম নিবন্ধন করার জন্য প্রথমে অনলাইনে আবেদন করতে হবে।

তারপর প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের ফটোকপি ও অনলাইন আবেদনের প্রিন্ট কপি নিয়ে সংশ্লিষ্ট সিটি কর্পোরেশন, পৌরসভা বা ইউনিয়ন পরিষদ অফিসে জমা দিতে হবে। এভাবেই জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে হয়।

উপসংহার

আশা করি আজকের এই ইনফরমেশন থেকে নতুন জন্ম নিবন্ধন আবেদন এবং জন্ম নিবন্ধন অনলাইন আবেদন কিভাবে করতে হয় এই সম্পর্কে বিস্তারিত বুঝতে পেরেছেন। যদি এখনও জন্ম নিবন্ধন করতে আপনার কোন অসুবিধা হয় তাহলে আপনি কমেন্ট করে আমাদের জানাতে পারেন। আমরা আপনাকে কমেন্ট এর মাধ্যমে সাহায্য করার অবশ্যই চেষ্টা করব। ধন্যবাদ ভালো থাকবেন।

আরও পড়ুন

Sanju

আমি সঞ্জু রাউত। আমার বাড়ি কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ। আমি অন্যকে ইনফরমেশন দিয়ে সাহায্য করতে ভালোবাসি। তাই আমি এই ব্লগটি ওপেন করি, যার দ্বারা আমার সখ এবং অন্যকে সাহায্য দুটোই সম্ভব হয়।

Leave a Comment