কম্পিউটার কি কি কাজে ব্যবহার হয় ?

আগের আর্টিকেল থেকে আমরা কম্পিউটার কাকে বলে এই সম্পর্কে জেনেছিলাম। আজকের আর্টিকেল থেকে আমরা জানবো কম্পিউটার কি কি কাজে ব্যবহার হয়

আমরা জানি যে আজকের বিভিন্ন কাজ সম্পন্ন করার জন্য বিভিন্ন ক্ষেত্রে কম্পিউটার ব্যাবহার হচ্ছে। মানুষ আজ কম্পিউটারের ওপর নির্ভর হয়ে পড়েছে। আজকের দিনে কম্পিউটার ছাড়া মানুষের নির্দিষ্ট কাজ করতে অনেক সময় লেগে যাবে।

তাই চলুন কম্পিউটার কি কি কাজে ব্যবহার হয় এই সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

কম্পিউটার কি কি কাজে ব্যবহার হয়?

1. শিক্ষায় কম্পিউটারের কাজ

শিক্ষার ক্ষেত্রে কম্পিউটার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। বর্তমানে অনেক স্কুল ও বিশ্ববিদ্যালয়ে কম্পিউটারের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের পাঠদানের কাজ করা হচ্ছে। আজ কম্পিউটার শিক্ষাকে অনেক কার্যকর করে তুলেছে।

এ ছাড়া শিক্ষা প্রশাসনের ক্ষেত্রেও কম্পিউটারের বিভিন্ন ব্যবহার করা হচ্ছে। প্রশ্নপত্র তৈরি করা, পরীক্ষার ফলাফল তৈরি করা, কাজের তালিকা তৈরি করা, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের সম্পর্কে তথ্য রাখা ইত্যাদি কাজগুলো কম্পিউটার খুব সহজে করে।

আজ কম্পিউটারেই বিভিন্ন ধরনের পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে। যার কারণে পরীক্ষার্থীদের আর উত্তরপত্র ব্যবহার করতে হবে না।

2. ব্যবসায় কম্পিউটার

আজ ছোট থেকে বড় সকল ব্যবসা-বাণিজ্যে কম্পিউটার ব্যবহৃত হচ্ছে। ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো তথ্যের সঠিক ফলাফল পেতে কম্পিউটারের সাহায্য নেয়।

ব্যবসায়িক ক্ষেত্রে কম্পিউটারের ব্যবহার শুরু হয় ১৯৫৪ সাল থেকে। আজ বাজারে বিভিন্ন ব্যবসায়িক সেক্টরের জন্য বিভিন্ন সফটওয়্যার পাওয়া যায়। যার সাহায্যে ব্যবসা সংক্রান্ত কাজ সহজে করা যাচ্ছে।

আপনি মাত্র কয়েকটি বোতাম টিপে সফ্টওয়্যারের মাধ্যমে ব্যবসা সম্পর্কিত তথ্য সহজেই পেতে পারেন। এটি কর্মীদের রেকর্ড, উত্পাদন, ব্যয়, বিক্রয়, মজুদ ইত্যাদি সম্পর্কে তথ্য পেতে কিনা।

3. ইন্টারনেট এবং ইন্ট্রানেট হিসাবে কাজ

ইন্টারনেট এবং ইন্ট্রানেটও কম্পিউটার প্রযুক্তির পণ্য। তাদের সহায়তায় দেশ-বিদেশে অনায়াসে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান তাদের ব্যবসা পরিচালনা করছে।

ইন্টারনেটের সাহায্যে, অনেক কোম্পানি তাদের পণ্য অনলাইনে বিক্রি করার পাশাপাশি তাদের অর্থ বিনিময় করছে।

4. ব্যাংকে কম্পিউটারের কাজ

ব্যাঙ্কগুলিতে লেনদেন গণনা এবং সঞ্চয় করতে কম্পিউটার ব্যবহার করা হয়। আজ, কম্পিউটারের মাধ্যমে চেক, এটিএম, ডেবিট কার্ড, ক্রেডিট কার্ড, স্মার্ট কার্ড ইত্যাদির অর্থ প্রদান করা হচ্ছে।

এটি কম্পিউটার প্রযুক্তির ফল যে একটি বোতাম চাপলে, যে কোনও গ্রাহকের অ্যাকাউন্টের সম্পূর্ণ বিবরণ জানা যায়। কম্পিউটারের কারণে আজ ব্যাংক হিসাব রক্ষণাবেক্ষণ খুব সহজ হয়ে গেছে।

এ ছাড়া শেয়ারবাজারে শেয়ারের দামের ওঠানামা, হস্তান্তর, মনোনয়ন প্রভৃতি তথ্য সহজেই পাওয়া যায়।

5. চিকিৎসা বিজ্ঞানে কম্পিউটার

স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা বিজ্ঞানের ক্ষেত্রেও কম্পিউটার অত্যন্ত উপযোগী প্রমাণিত হয়েছে। আজ কম্পিউটারের সাহায্যে ওষুধ তৈরি থেকে চিকিৎসা পর্যন্ত সম্পূর্ণ প্রক্রিয়া সফলভাবে সম্পন্ন করা হচ্ছে।

রোগ নির্ণয় ও চিকিৎসার ক্ষেত্রেও কম্পিউটার অত্যন্ত উপযোগী প্রমাণিত হচ্ছে। কম্পিউটারাইজড ডিভাইসের সাহায্যে মানবদেহের প্রতিটি অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের তথ্য পাওয়া যায়। হার্ট, লিভার, কিডনি ইত্যাদির কার্যকারিতা সম্পর্কে সঠিক তথ্য জানা যায়।

6. আবহাওয়াবিদ্যায় কম্পিউটারের ব্যবহার

মেটিওরোলজি বা আবহাওয়াবিদ্যায় কম্পিউটার বিভিন্ন কাজে ব্যবহৃত হয়। বাতাসের চাপের এলাকা নির্ণয়, মেঘের উচ্চতা, অবস্থান, গতি ও দিক নির্ণয়, অর্ধেক ও ঝড় শনাক্ত করতে কম্পিউটার খুবই সহায়ক বলে প্রমাণিত হয়েছে।

7. প্রকৌশল ক্ষেত্রে কাজ

কম্পিউটার প্রকৌশলের ক্ষেত্রে, বিভিন্ন ধরণের সহজ এবং জটিল মেশিন, ছোট মেশিন এবং সরঞ্জামের নকশা আমাদের সহজলভ্য করে তোলে।

এছাড়াও কম্পিউটার আমাদের সেতু, ভবন, খাল, জাহাজ, বিমান, রেলওয়ে ইঞ্জিন ইত্যাদির নকশা দেয়।

8. খেলাধুলা এবং বিনোদন ক্ষেত্রের কাজে

বর্তমানে অনেকেই বিভিন্ন ধরনের গেম খেলতে কম্পিউটার ব্যবহার করেন। যেমন লুডু, কার রেস, মোটরসাইকেল রেস, টেনিস, ক্রিকেট ইত্যাদি। এই গেমগুলি মানুষের মধ্যে খুব জনপ্রিয়।

এছাড়াও কম্পিউটার আমাদের বিনোদনের সেরা মাধ্যম। আমরা মাল্টিমিডিয়া এবং স্পিকারের সাহায্যে গান শুনতে পারি। মুভিটি দেখে আপনি নিজেকে বিনোদন দিতে পারেন।

9. যোগাযোগের কাজ

কম্পিউটার ডাক বিভাগের কাজকেও অনেক সহজ করে দিয়েছে। ইন্টারনেটের সাহায্যে, ব্যবহারকারীরা এখন ঘরে বসেই ইমেলের মাধ্যমে তাদের প্রিয়জনকে তাদের বার্তা পাঠাতে পারে এবং অবিলম্বে তাদের বার্তা ফিরে পেতে পারে।

10. মহাকাশ বিজ্ঞানে কাজ

কম্পিউটারের কারণেই আজ মহাকাশ বিজ্ঞান উচ্চ শিখরে। মহাকাশে উড়োজাহাজ পাঠানো, মাটিতে নিয়ন্ত্রণ করা এবং সেখান থেকে প্রাপ্ত সিগন্যালকে ডিজিটাল ফরম্যাটে রূপান্তর করে প্রয়োজনীয় আকারে ব্যবহার করা সবই সম্ভব হয়েছে শুধুমাত্র কম্পিউটার আবিষ্কারের মাধ্যমে।

কম্পিউটারের সাহায্যে মহাকাশে উড়ন্ত স্যাটেলাইট যন্ত্রের নির্দেশনা দেওয়া হয়। কম্পিউটারের কারণেই মানুষ চাঁদ, মঙ্গল বা অন্য কোনো গ্রহে পৌঁছানোর সাহস সঞ্চয় করতে সক্ষম হয়েছে।

11. ট্রাফিক সিস্টেমে কম্পিউটার

ট্রাফিক সিস্টেমের অধীনে, কম্পিউটারগুলি জল, স্থল এবং বিমান পরিবহনের ব্যবস্থা এবং পরিচালনার জন্য ব্যবহৃত হয়।

কম্পিউটারের মাধ্যমে আমরা ট্রেনের আগমনের সময়, ট্রেনের গতি ইত্যাদি জানতে পারি। এ ছাড়া বিমানের উড্ডয়নের গঠন, উচ্চতা প্রভৃতি তথ্য পৃথিবীতেই কম্পিউটার থেকে পাওয়া যায়।

12. চলচ্চিত্র শিল্পের কাজ

কম্পিউটার ফিল্ম, সিনেমা, কার্টুন বা অ্যানিমেশন তৈরিতে দারুণ সহজতা দিয়েছে। ফিল্ম আকর্ষণীয় এবং বিশেষ প্রভাব তৈরি করতে কম্পিউটার ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয়।

কম্পিউটার গ্রাফিক্স, অ্যানিমেশন, এডিটিং ইত্যাদি ব্যবহার করে ফিল্ম তৈরি করা হয়। যাতে মানুষ ছবিটি দেখে প্রচুর বিনোদন পেতে পারে।

13. বৈজ্ঞানিক ক্ষেত্রে ব্যাবহার

কম্পিউটার বিজ্ঞানীদের অনেক কিছু করতে এবং নতুন বৈজ্ঞানিক আবিষ্কার করতে সক্ষম করে তুলেছে।

আণবিক গঠন, রাসায়নিক বিশ্লেষণ, খনিজ পদার্থের বিশ্লেষণ, ইলেকট্রনিক আবিষ্কার ইত্যাদি কাজ কম্পিউটারের সাহায্যে করা হচ্ছে।

14. সামরিক বাহিনীতে কম্পিউটার

কম্পিউটারের সাহায্যে সামরিক মহড়া ও যুদ্ধ কৌশল প্রস্তুত করা হয়। ট্যাঙ্ক, মিসাইল, সাবমেরিন ইত্যাদির মতো সংবেদনশীল যন্ত্রপাতি তৈরিতে কম্পিউটার ব্যবহার করা হয়।

এ ছাড়া হাইড্রোজেন এবং পারমাণবিক বোমার মতো প্রাণঘাতী অস্ত্র পরীক্ষা করা হয় এবং কম্পিউটারের সাহায্যে তাদের প্রভাব পরীক্ষা করা হয়। এই সব কাজ সম্ভব হয়েছে শুধুমাত্র কম্পিউটারের কারণে।

কম্পিউটার দিয়ে কি কি করা যায়?

  • এমএস ওয়ার্ড, এক্সেল এবং পাওয়ার পয়েন্টের মতো বিভিন্ন সফ্টওয়্যার ব্যবহার করে আপনি নথি তৈরি করতে পারেন, স্প্রেডশীট এবং উপস্থাপনা তৈরি করতে পারেন।
  • বিনোদনের জন্য অনেক ক্রিয়াকলাপ করা যেতে পারে যেমন গান শোনা, সিনেমা দেখা এবং ভিডিও গেম খেলা।
  • ব্যক্তিগত তথ্য, ফাইল এবং বিভিন্ন ধরনের ডেটা সংরক্ষণ করতে পারে।
  • আপনি সামাজিক মিডিয়া ব্যবহার করে পরিবার এবং বন্ধুদের সাথে সংযোগ করতে পারেন।
  • আপনি ইন্টারনেটে সংযোগ করে ওয়েব ব্রাউজ করতে পারেন।
  • ছবি এবং ভিডিও সম্পাদনা করতে পারেন।
  • আপনি অনলাইন সেবা পেতে পারেন।
  • ইমেইল পাঠাতে এবং গ্রহণ করতে পারেন।

উপসংহার

আশা করছি আজকের আর্টিকেল থেকে কম্পিউটার কি কি কাজে ব্যবহার হয় – এই সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। যদি আর্টিকেলটা আপনার ভালো লেগে থাকে, তাহলে কমেন্ট করে আমাদের জানাতে ভুলবেন না।

আরও পড়ুন

Sanju

আমি সঞ্জু রাউত। আমার বাড়ি কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ। আমি অন্যকে ইনফরমেশন দিয়ে সাহায্য করতে ভালোবাসি। তাই আমি এই ব্লগটি ওপেন করি, যার দ্বারা আমার সখ এবং অন্যকে সাহায্য দুটোই সম্ভব হয়।

Leave a Comment