কম্পিউটার এর সুবিধা ও অসুবিধা (উপকারিতা ও অপকারিতা)

আজকের দিনে কম্পিউটারের নাম শোনেননি এমন লোক খুব কম আছে। যদি আপনি ও কম্পিউটার ব্যবহার করেন তাহলে আপনার কম্পিউটার এর সুবিধা ও অসুবিধা গুলি জেনে রাখা দরকার।

এই জন্য আজকের এই আর্টিকেল থেকে আমরা কম্পিউটারের উপকারিতা ও অপকারিতা গুলি সম্পর্কে আলোচনা করব।

যদি আপনিও কম্পিউটার ব্যবহারের সুবিধা এবং অসুবিধা গুলি জানতে চান তাহলে আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে পড়ে নিন।

কম্পিউটার এর সুবিধা

সবথেকে প্রথমে কম্পিউটারের সুবিধা গুলো জেনে নেওয়া যাক। যার মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন কম্পিউটার ব্যবহার করা কেন গুরুত্বপূর্ণ এবং এর থেকে কি কি সুবিধা পাওয়া যায় বা কম্পিউটারের উপকারিতা কি। কম্পিউটার ব্যবহারের সুবিধা গুলি হল –

1. মাল্টিটাস্কিং

মাল্টিটাস্কিং কম্পিউটার ব্যবহারের সবথেকে বড় সুবিধা। মাল্টিটাস্কিং মানে একই সময়ে অনেকগুলি কাজ করা।

কম্পিউটারের মাধ্যমে মাল্টিটাস্কিং করা যায় এর মানে হলো একজন ব্যক্তি নির্দিষ্ট সময়ে একের বেশি অপারেশন করতে পারে। এবং কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে এই সমস্ত গাণিতিক বিষয়গুলির সমাধান, কম্পিউটার দিতে পারে।

2. স্পিড বা গতি

কম্পিউটার একসাথে অনেকগুলো কাজ করতে পারে। এবং কম্পিউটার যে সকল কাজ গুলি করে, এই সমস্ত কাজ গুলি করতে কম্পিউটারের সময় লাগে সেকেন্ডেরও কম।

কম্পিউটার মাত্র কয়েক সেকেন্ডে কয়েক হাজার কাজ সম্পন্ন করতে পারে।

এজন্য বিশেষ বিশেষ কম্পিউটার শুধুমাত্র তাদের কাজ করার গতির জন্য বিভিন্ন ক্ষেত্রে ভূমিকা রেখে থাকে।

এটিও জেনে নিন -  এনালগ কম্পিউটার কাকে বলে ও কত প্রকার?

3. নির্ভুলতা

একটি কম্পিউটারে যে সমস্ত গানিতিক বিষয়াবলী বা কাজগুলো সম্পন্ন করে থাকে সেগুলো কম্পিউটার পুরো নিখুঁতভাবে এবং নির্ভুল ভাবে সম্পন্ন করে।

মানুষ খাতা-কলমে যে সমস্ত কাজগুলো করে সেগুলির ক্ষেত্রে, বেশিরভাগ সময় কম বেশি ভুল হয়ে থাকে। কিন্তু সেই একই কাজ যদি কম্পিউটারের মাধ্যমে করা হয় তাহলে সেটি নির্ভুল হবে এবং সঠিক রেজাল্ট পাওয়া যাবে।

অর্থাৎ কম্পিউটারের সব থেকে বড় একটি সুবিধা হলো কম্পিউটার নির্ভুলভাবে যেকোনো কাজ করতে পারে।

4. সিকিউরিটি

কম্পিউটারের মধ্যে যে সকল ডেটাগুলি সংরক্ষিত থাকে, সেগুলি কম্পিউটার হাই প্রটেক্টর সিকিউরিটির মাধ্যমে আবদ্ধ রাখে।

এই কারণে কম্পিউটারের মধ্যে যেকোনো ডাটা থাকলে সেগুলি অন্যান্য ক্ষেত্রের তুলনায় অনেক সুরক্ষিত থাকে। এবং ডাটা চুরি হওয়ার ভয় ও কম থাকে।

5. খরচ

আজকাল বিভিন্ন ধরনের কম্পিউটার পাওয়া যায়। যেকোনো ব্যক্তি নির্দিষ্ট মূল্যে যেকোনো ধরনের কম্পিউটার ব্যবহার করতে পারে। আজকাল বিভিন্ন কোম্পানি কম্পিউটার তৈরি করার কারণে, কম্পিউটার কেনার ক্ষমতা সাধারণ মানুষের আওতায় এসে গেছে।

এই জন্য যে কোন হিসাব নিকাশ করতে এবং যেকোনো কাজের জন্য একটু খরচ করেই কম্পিউটার কিনে নিয়ে তার মধ্যে যেকোনো ধরনের কাজ করা যায়।

6. জটিল কাজ

মানুষ যে সমস্ত কাজ গুলি করতে পারে না, সেই সমস্ত জটিল কাজ গুলি কম্পিউটারের মাধ্যমে খুব সহজে করা যায়।

এটিও হলো কম্পিউটারের একটি বিরাট সুবিধা। এই জন্য আজকাল যে কোন ক্ষেত্রে কম্পিউটারের ব্যবহার করা হচ্ছে।

7. কাজের চাপ কমায়

আগেকার দিনে হাতে লিখে বিভিন্ন ধরনের কাজ করার কারণে প্রচুর পরিমাণে দক্ষ ব্যক্তির প্রয়োজন হতো।

কিন্তু আজকের দিনে বেশিরভাগ লেখালেখির কাজ কম্পিউটারের মাধ্যমে হওয়ার কারণে কাজের চাপ কমে যায়। এবং কিছু সংখ্যক ব্যক্তি নিয়ে যে কোন নির্দিষ্ট কাজ কম্পিউটারের মাধ্যমে করা যায়।

কম্পিউটার ব্যবহারের কারণে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান এবং কোম্পানির কাজের চাপ অনেকাংশে কমে গেছে।

এটিও জেনে নিন -  স্পেশাল কি (key) কাকে বলে ও এর উদাহরণ

8. যোগাযোগ

কম্পিউটার আজকের দিনে একটি প্রধান যোগাযোগের মাধ্যম হয়ে গেছে। হাতে থাকা স্মার্টফোন থেকে শুরু করে ল্যাপটপ পর্যন্ত সবকিছুর মাধ্যমেই পৃথিবীর যেকোন প্রান্তে থাকা ব্যক্তির সাথে যোগাযোগ করা যায়।

9. সঞ্চয় করার ক্ষমতা

আগেকার দিনে নির্দিষ্ট জিনিস লিখে রাখার জন্য এবং হিসাব নিকাশ করার জন্য প্রচুর পরিমাণে খাতা এবং ডাইরির প্রয়োজন হতো। এবং পরবর্তীকালে সেগুলি খুঁজে পেতে প্রচুর অসুবিধার মুখোমুখি হতে হতো।

কিন্তু আজকের দিনে কম্পিউটার ব্যবহারের কারণে যে কোন জিনিস খুব সহজে কম্পিউটার এর মধ্যে সঞ্চয় করে রাখা যায়। এবং আলাদা আলাদা নাম দিয়ে সঞ্চয় করার কারণে নির্দিষ্ট জিনিস খুব সহজে খুঁজে পাওয়া যায়।

এবং একটি সাধারণ কম্পিউটারের মধ্যে একসাথে কয়েক হাজার জিনিস স্টোর কোরে রাখা যেতে পারে।

কম্পিউটার ব্যবহারের ক্ষতিকর দিক বা অসুবিধা

আশা করছি আপনি উপর থেকে কম্পিউটার ব্যবহারের সুবিধা গুলো জেনে নিয়েছেন। তবে যে কোন জিনিসের সুবিধার সাথে সাথে কিছু অসুবিধাও থাকে। এইজন্য এবার আমরা কম্পিউটার ব্যবহারের অসুবিধা গুলি জানবো। কম্পিউটার ব্যবহারের ক্ষতিকর দিক গুলি হল –

1. কর্মসংস্থানের সুযোগ কমে যাওয়া

কম্পিউটার আসার পরে খুব কম সংখ্যক ব্যক্তি নিয়ে যে কোন কাজ করা যায়। এই জন্য বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন মানুষ তাদের কাজ হারাচ্ছেন। কম্পিউটার আসার পর এটি হলো সবথেকে বড় একটি অসুবিধা।

2. ভাইরাস এবং হ্যাকিং আক্রমণ

কম্পিউটারের মধ্যে ইন্টারনেট ব্যবহার করলে এবং অন্য কোন কারণে প্রচুর পরিমাণে ভাইরাস ঢুকে যায়। যার কারনে কম্পিউটার হ্যাং করে। এবং সেই সময় নির্দিষ্ট কাজ কম্পিউটারের মাধ্যমে করলে কম্পিউটার ঠিকমতো কাজ করে না। যার ফলে ইউজার বিরক্তি হয়।

এছাড়া নির্দিষ্ট কম্পিউটার কোন সংগঠন দ্বারা হ্যাক হলে, সেই কম্পিউটারে থাকা সমস্ত ডাটা চুরি হওয়ার ভয় থাকে।

3. সাইবার ক্রাইম

অনলাইনের মাধ্যমে আজকাল প্রচুর পরিমাণে জালিয়াতির সংখ্যা বেড়ে গেছে। এবং এই সমস্ত কিছু হচ্ছে কম্পিউটারের জন্য।

এটিও জেনে নিন -  কম্পিউটার জেনারেশন কি | সকল প্রজন্মের কম্পিউটারের বৈশিষ্ট্য

কোনো নির্দিষ্ট গোষ্ঠী কম্পিউটারের মাধ্যমে বিভিন্ন সাধারণ ব্যক্তি থেকে শুরু করে বড় বড় মানুষের, বিভিন্ন ভাবে ক্ষতি করছে এবং তারা বিভিন্ন জালিয়াতির শিকার হচ্ছে।

4. সময় নষ্ট

অনেক মানুষ আছেন যারা শুধুমাত্র বিনোদনের জন্য কম্পিউটার ব্যবহার করেন। তারা বিভিন্ন ধরনের গেম, অ্যাপ্লিকেশন এবং ভিডিওর মাধ্যমে সময় নষ্ট করেন।

5. ব্যয়বহুল

বেশিরভাগ মানুষের কাছে আজ কম্পিউটার কেনা কিছুই ব্যাপার নয়। কিন্তু এমনও কিছু গরিব মানুষ আছে যাদের পক্ষে কম্পিউটার কেনা সম্ভব নয়।

এই জন্য বেশিরভাগ ব্যক্তি পুরনো নিয়ম অনুসারে তাদের কাজ করে চলেছে।

শিক্ষা ক্ষেত্রে কম্পিউটার ব্যবহারের সুবিধা

  • কম্পিউটারের মাধ্যমে অনলাইন ক্লাস করা যায়
  • যেকোনো ক্লাস মিটিং এটেন্ড করা যায়
  • যেকোনো বই পিডিএফ ফরম্যাটে পড়া যায়
  • Notes লিখে রাখা যায়
  • প্রেজেন্টেশন তৈরি করা যায়
  • নির্দিষ্ট পড়াশোনার জিনিস অন্য ছাত্র এবং শিক্ষকদের সাথে শেয়ার করা যায়
  • বাড়িতে বসে পড়াশোনা করা যায়
  • ইত্যাদি।

উপসংহার

আশা করি আজকের এই ইনফরমেশন থেকে কম্পিউটার ব্যাবহারের প্রতিটি সুবিধা এবং অসুবিধা সম্পর্কে ভালোভাবে বুঝতে পেরেছেন। যদি আপনি কম্পিউটার ব্যবহার করেন বা করতে চান তাহলে সুবিধা এবং অসুবিধা গুলি বিবেচনা করে তবেই কম্পিউটার ব্যবহার করুন। তবে কম্পিউটারের অপকারিতার থেকে উপকারিতা অনেক বেশি।

Sanju

আমি সঞ্জু রাউত। আমার বাড়ি কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ। আমি অন্যকে ইনফরমেশন দিয়ে সাহায্য করতে ভালোবাসি। তাই আমি এই ব্লগটি ওপেন করি, যার দ্বারা আমার সখ এবং অন্যকে সাহায্য দুটোই সম্ভব হয়।

Leave a Comment