একাদশীতে কি কি খাওয়া যাবে, কি খাওয়া যাবেনা?

অনকেই একাদশী পালন করে থাকেন কিন্তু অনেক মানুষের কাছে একাদশীতে কি কি খাওয়া যাবে, কি খাওয়া যাবেনা – এই বিষয়টি অস্পষ্ট হওয়ায় তারা অনেক সময় একাদশীর দিন ভুল খাবার গ্রহণ করে ফেলে।

যদি আপনিও একাদশী পালন করে থাকেন এবং একাদশীতে কি কি খাওয়া যাবে, কি খাওয়া যাবেনা – এই বিষয়ে না জেনে থাকেন তাহলে চিন্তা করার দরকার নেই। কারণ আজকের আর্টিকেল থেকে আপনি এই সম্পর্কে বিস্তারিত এবং স্পষ্ট ইনফরমেশন পেয়ে যাবেন। তাই চলুন দেরি না করে জেনে নেওয়া যাক।

একাদশীতে কি কি খাওয়া যাবে?

  • বাড়িতে ভাঙ্গান গুঁড়া হলুদ
  • মরিচ
  • লবন
  • ঘী
  • মাখন
  • পালং শাক
  • জলপাই তেল
  • আলু
  • মিষ্টি আলু
  • কুমড়া
  • কাচা কলা
  • চালকুমড়া
  • বাদাম তেল
  • চিনি
  • দুধ
  • মধু
  • ধনে পাতা
  • পুদিনা পাতা
  • আদা
  • দারুচিনি
  • টমেটো
  • গাজর
  • ঢ্যাঁড়শ
  • বাদাম
  • লেটুস পাতা
  • বাধাকপি
  • ফুলকপি
  • কারি পাতা
  • ঘরে বানানো ছানা
  • পনির
  • দই
  • ফ্রেস ক্রিম
  • সব রকমের ফল।

একাদশীতে কি কি মসলা খাওয়া যায়?

বাড়িতে ভাঙ্গান গুঁড়া হলুদ, গোলমরিচ, গোটা জিরা ব্যবহার্য। কিন্তু অন্য কোন রকম ফোরন বা মসলা ব্যবহার করা যাবে না।

একাদশীতে কি সাবু খাওয়া যায়?

সাবু একটি গাছের গুড়ার ফল থেকে তৈরি। সাবু, পাম গাছের কাণ্ডের ভেতরের নরম অংশ থেকে তৈরি করা হয়। সাবু উপরে উল্লেখ করা পাঁচ প্রকার শস্যের মধ্যে পড়ে না। এইজন্য একাদশীতে সাবু খাওয়া যায়।

একাদশীতে কি কি সবজি খাওয়া যায়?

  • পালং শাক
  • আলু
  • মিষ্টি আলু
  • কুমড়া
  • ধনে পাতা
  • পুদিনা পাতা
  • টমেটো
  • গাজর
  • ঢ্যাঁড়শ
  • লেটুস পাতা
  • বাধাকপি
  • ফুলকপি

একাদশীতে কি কি খাওয়া নিষিদ্ধ?

একাদশীতে এই পাঁচটি রবিশস্য বা পঞ্চ রবিশস্য খাওয়া নিষিদ্ধ। এই পঞ্চ রবিশস্য হলো –

১. ধান জাতীয় খাদ্য

ভাত,খিচুড়ি,মুড়ি, চিঁড়া, খই, সুজি, চালের গুঁড়া, চালের পিঠা, পায়েস।

২. গম জাতীয় খাদ্য

আটা, ময়দা,সুজি,রুটি, বিস্কুট।

৩. যব বা ভুট্টা জাতীয় খাদ্য

ছাতু, খই, রুটি।

৪. ডাল জাতীয় খাদ্য

মুগ, মশুর, মটর, মাসকলাই, ছোলা, অড়হর, বরবটি, শিম, বুট।

৫. তেল জাতীয় খাদ্য

সরিষা তেল ও তিলের তেল।

একাদশীতে কি কি বর্জনীয়?

পঞ্চ রবিশস্য গুলি ছাড়াও একাদশীতে মাছ, মাংস, ডিম, পিঁয়াজ, হিং পাউডার, দোকানের গুঁড়া মসলা, দোকানের গুঁড়া মরিচ, হলুদ, চা, বিড়ি, সিগারেট,পান, যেকোনো নেশা জাতীয় দ্রব্য বর্জনীয়।

উপসংহার

আশা করছি আজকের এই আর্টিকেলটা থেকে একাদশীতে কি কি খাওয়া যাবে, কি খাওয়া যাবেনা – এই সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। এই আর্টিকেলটা পুরোপুরি ইন্টারনেট রিসার্চ এর মাধ্যমে লেখা হয়েছে। যদি কোনো লেখায় ভুল হয়ে থাকে তার জন্য কমেন্ট করে আমাদের জানাতে পারেন এবং আর্টিকেলটা সম্পর্কে কোনো প্রশ্ন থেকে থাকলেও জিজ্ঞাসা করতে পারেন। ধন্যবাদ।

আরও জানুন

Sanju

আমি সঞ্জু রাউত। আমার বাড়ি কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ। আমি অন্যকে ইনফরমেশন দিয়ে সাহায্য করতে ভালোবাসি। তাই আমি এই ব্লগটি ওপেন করি, যার দ্বারা আমার সখ এবং অন্যকে সাহায্য দুটোই সম্ভব হয়।

Leave a Comment