আইপি অ্যাড্রেস কি – আইপি অ্যাড্রেস এর প্রকার ও ভার্সন সমূহ

আইপি এড্রেস কি – কোন নির্দিষ্ট জায়গায় কোন পণ্য পৌঁছানোর জন্য, সেই নির্দিষ্ট জায়গার এড্রেসটি জানার প্রয়োজন হয়। যেখানে ব্যক্তির নাম গুরুত্ব না থাকলেও তার এড্রেসটি গুরুত্ব বহন করে। ঠিক তেমনি, একটি ডিভাইস থেকে অন্য ডিভাইসে নেটওয়ার্ক তৈরি করার জন্য এবং ইন্টারনেট থেকে ডাটা অ্যাকসেস করার জন্য, মোবাইলের শুধু নাম জানলেই হয় না। প্রত্যেকটি ডিভাইসকে আলাদা আলাদা ভাবে চিহ্নিত করার জন্য তাদের আইপি অ্যাড্রেস এর প্রয়োজন হয়।

আজকের আর্টিকেলে আইপি এড্রেস কি, আইপি অ্যাড্রেস কাকে বলে, আইপি অ্যাড্রেস কয় প্রকার ও আইপি অ্যাড্রেস এর ভার্সন সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব। যদি আপনিও আইপি অ্যাড্রেস সম্পর্কে এ সমস্ত প্রশ্নের উত্তর গুলো পেতে চান, তাহলে আজকে আর্টিকেলটি পড়তে থাকুন।

আইপি এড্রেস কি?

প্রত্যেকটি ডিভাইসকে আইডেন্টিটি করবার জন্য আইপি অ্যাড্রেস এর ব্যবহার করা হয়। যার সাহায্যে কোন ডিভাইস ইন্টারনেট সংযোগ বা অন্য ডিভাইসের সাথে নেটওয়ার্ক তৈরি করার সময়, আইপি অ্যাড্রেস এর সাহায্যে নির্দিষ্ট ডিভাইসটিকে লোকেট এবং চিহ্নিত করা হয়।

প্রত্যেকটি ডিভাইসের আইপি অ্যাড্রেস আলাদা। আইপি অ্যাড্রেস বিভিন্ন সংখ্যার দ্বারা, গণিতের অংকের মত হয়ে থাকে।

আইপি অ্যাড্রেস ছাড়া একটি ডিভাইস থেকে অন্য ডিভাইসের নেটওয়ার্কের কানেকশন করা সম্ভব নয়। এই জন্য মোবাইলে ওয়াইফাই ব্যবহার করার সময়, নির্দিষ্ট ব্রাউজারের কোন কিছু সার্চ করে ইন্টারনেটে প্রবেশ করার পর, সার্ভার নির্দিষ্ট আইপি এড্রেসটি কোথায় আছে এটি দেখার চেষ্টা করে এবং রাউটার নির্দিষ্ট ডিভাইস টি কোথায় আছে সেটি নির্ণয় করে, সার্ভার এর কাছে রিকোয়েস্ট পাঠায়।

বিনা রাউটার ব্যবহার করে যখন আমরা মোবাইল সিম কার্ডের সাহায্যে ইন্টারনেট ব্যবহার করি তখন, ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার, রাউটারের কাজটি করে থাকে।

সুতরাং নেটওয়ার্ক তৈরি করার জন্য সার্ভার এবং আইপি অ্যাড্রেস এর যোগাযোগ তৈরি হওয়া একান্ত জরুরী।

আইপি অ্যাড্রেস কতকটা এই রকম দেখতে হয় – 172.16.254.1

আইপি অ্যাড্রেস কাকে বলে

দুটি ডিভাইস কে একত্রে কানেকশন তৈরি করার জন্য বা কোনো ডিভাইসকে ইন্টারনেটে প্রবেশ করানোর সময়, ডিভাইসটি চিহ্নিত করবার জন্য যে এড্রেস টি ব্যবহার করা হয় তাকেই আইপি অ্যাড্রেস বলে।

একটি ডিভাইস থেকে অন্য ডিভাইসে ডাটা পাঠানোর সময় বা সার্ভার থেকে ডাটা নেওয়ার সময়, ডিভাইসের নির্দিষ্ট এড্রেসটি locate করার প্রয়োজন হয়। আইপি এড্রেস এর সাহায্যেই পার্টিকুলার ডিভাইস টি খুঁজে বের করা হয়।

আইপি অ্যাড্রেস এর প্রকারভেদ

আইপি অ্যাড্রেস দুই ধরনের হয়। একটি হলো প্রাইভেট আইপি অ্যাড্রেস এবং দ্বিতীয় টি হলো পাবলিক আইপি অ্যাড্রেস

প্রাইভেট আইপি অ্যাড্রেস

যখন মোবাইল কম্পিউটারের মত ডিভাইসগুলি রাউটারের মত ডিভাইসের সাথে কেবল বা ওয়ারলেস ভাবে সংযুক্ত হয় তখন থেকে প্রাইভেট আইপি এড্রেস বলে।

যেহেতু এই ধরণের আইপি অ্যাড্রেস গুলি প্রাইভেট কোন মডেম এবং ডিভাইসের সাথে কানেকশন তৈরি করে, তাই এই ধরনের আইপি অ্যাড্রেস গুলি ব্যক্তিগত বা প্রাইভেট হয়।

পাবলিক আইপি অ্যাড্রেস

পাবলিক আইপি কি – পাবলিক আইপি অ্যাড্রেস দুই ধরনের হয়ে থাকে। ১. স্ট্যাটিক আইপি এড্রেস এবং ২. ডাইনামিক আইপি অ্যাড্রেস।

১. স্ট্যাটিক আইপি অ্যাড্রেস

যখন ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার আইএসপি দ্বারা, ডিভাইসের আইপি অ্যাড্রেসকে কোন সার্ভার অ্যাক্সেস করার জন্য ব্যবহার করা হয়, তখন তাকে স্ট্যাটিক আইপি অ্যাড্রেস বলে। এই সকল আইপি অ্যাড্রেস গুলি বদলানো যায় না। কোন ওয়েবসাইট বা ডিএনএস সার্ভার এর আইপি অ্যাড্রেস হলো স্ট্যাটিক আইপি অ্যাড্রেস এর উদাহরণ।

২. ডাইনামিক আইপি অ্যাড্রেস

যখন কোন কম্পিউটারের আইপি অ্যাড্রেস ইন্টারনেট কানেক্টেড হওয়ার সময়, অটোমেটিক বদলে যায় তখন সেটিকে ডায়নামিক আইপি এড্রেস বলে।

অনেক সময় দুটি ডিভাইস কে একত্রে কানেক্ট করলে দুটি ডিভাইসের আইপি অ্যাড্রেস কানেক্ট হয় এবং ইন্টারনেট সংযোগ করলে সেই আইপি এড্রেসটি বদলে যায়। এই ধরনের আইপি অ্যাড্রেস গুলি ডায়নামিক আইপি অ্যাড্রেস এর মধ্যে পড়ে।

আইপি অ্যাড্রেস এর বিভিন্ন class

নির্দিষ্ট আইপি অ্যাড্রেস এর কাজ এবং গঠনের ভিত্তিতে এটিকে বিভিন্ন ভাগে ভাগ করা হয়। এইজন্য এগুলিকে আলাদা আলাদা ক্লাসে divide করা হয়।

Class A

এই ধরনের আইপি অ্যাড্রেস এর range 1.0.0 1 থেকে 120.134.254.255 পর্যন্ত হয়।

Class B

128.1.0.1 থেকে 191.255.255.254 পর্যন্ত হয়।

Class C

193.0.1.1 থেকে 223.255.254.254 পর্যন্ত।

Class D

229.0.0.0 থেকে 239.255.255.255 পর্যন্ত হয়ে থাকে।

Class E

240.0.0.1 থেকে 254.255.255.254 পর্যন্ত হয়।

আইপি অ্যাড্রেস এর ভার্সন

আইপি অ্যাড্রেস অন দুটি ভার্সন রয়েছে একটি হলো পুরনো এবং একটি নতুন। দুটি ভার্সন এর নাম হলো IPV4 এবং IPV6।

IPV4

এ ধরনের আইপি অ্যাড্রেস 32 bit এর হয়ে থাকে। এবং এটিকে কতটা এরকম দেখতে 172.16.254.1 হয়। এখানে প্রত্যেকটি ঘরের রেঞ্জ 0 থেকে 255 পর্যন্ত হয়ে থাকে। এবং প্রত্যেকটি ভাগ 8 bit এর হয়।

IPV6

বর্তমানে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা বেশি হওয়ার কারণে আই পি এড্রেস ভার্সন পরিবর্তন করা হয়েছে। এবং পুরনো ভার্সন টিকে IPV6 দ্বারা আপগ্রেড করা হয়।

IPV6 আইপি অ্যাড্রেস 128 bit এর হয়ে থাকে। এই ধরনের আইপি অ্যাড্রেস এর সংখ্যা, IPV4 এর তুলনায় বেশি হয়। এবং এই ধরনের আইপি অ্যাড্রেস যেকোন রাউটারের নেটওয়ার্ক, পরিবর্তন করতে পারে। আধুনিক ডেক্সটপ এবং সার্ভারে এই ধরনের আইপি অ্যাড্রেস ব্যবহার করা হয়।

আপনার মোবাইলের আইপি এড্রেস কিভাবে দেখবেন

নির্দিষ্ট মোবাইলের আইপি এড্রেস দেখার জন্য, ইন্টারনেটের মাধ্যমে কোন ওয়েব ব্রাউজার খুলে নিয়ে সেখানে what is my ip কথাটি লিখলেই, আপনার ডিভাইসের আইপি অ্যাড্রেস দেখতে পাবেন।

এবং অন্য যেকোনো মোবাইলের আইপি এড্রেস দেখতে গেলে, সেই মোবাইলেও ইন্টারনেট চালু করে একই স্টেপ ফলো করতে হবে।

এছাড়া মোবাইলের সেটিং অপশন থেকে About Phone অপশনে গিয়ে, ip address সেকশনে গেলেও আপনার মোবাইলের আইপি এড্রেস দেখতে পাবেন।

আইপি এড্রেস (ipv4) কত বিটের?

ANS – ৩২ বিটের

আইপি এড্রেস (ipv6) কত বিটের?

ANS – ১২৮ বিটের

উপসংহার

আশা করি উপরের ইনফর্মেশন থেকে আইপি এড্রেস কি, আইপি অ্যাড্রেস কাকে বলে, আইপি এড্রেস কত প্রকার এবং আইপি অ্যাড্রেস এর ভার্সন সম্পর্কে ভালোভাবে বুঝতে পেরেছেন। যদি এখনও আইপি এড্রেস সম্পর্কে আপনার কোন জিজ্ঞাসা থাকে, তাহলে কমেন্ট করে আমাদের জানাতে পারেন।

শেয়ার করতে চান!
  •  
  •  
  •  
  •  

আমি সঞ্জু রাউত। আমার বাড়ি কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ। আমি অন্যকে ইনফরমেশন দিয়ে সাহায্য করতে ভালোবাসি। তাই আমি এই ব্লগটি ওপেন করি, যার দ্বারা আমার সখ এবং অন্যকে সাহায্য দুটোই সম্ভব হয়।

Leave a Comment